চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তৃতীয় ন্যাশনাল এফ-কমার্স সামিট ২৮ ডিসেম্বর

আগামী ২৮ ডিসেম্বর রাজধানীর কেআইবি কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ন্যাশনাল এফ কমার্স সামিট-২০১৯।

স্পেশালাইজড ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সি গীকি সোশ্যাল লিমিটেডের এই আয়োজনে সহযোগিতা করছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, এটুআই-আইসিটি ডিভিশন এবং বেসিস।

দিনব্যাপী এই আয়োজনে প্রোডাক্ট এক্সিবিশন এবং নলেজ সেশনে মিলে ২ হাজার দর্শনার্থী এবং ১ হাজার উদ্যোক্তার মিলনমেলা হবে বলে ধারণা করছেন আয়োজকরা।

বাংলাদেশে বর্তমানে প্রায় ৩ লাখ এফ- কমার্স উদ্যোক্তা রয়েছেন। যার ৫০ শতাংশের অধিক নারী উদ্যোক্তা।

বিজ্ঞাপন

এফ-কমার্স শিল্পের ক্রমবর্ধমান মানোন্নয়ন, কারিগরি দক্ষতা বৃদ্ধি ও সচেতনতা তৈরির জন্য এফ- কমার্স সামিটে রাখা হয়েছে ৪টি নলেজ সেশন। ইউটিউবারদের মতো করে কিভাবে ফেসবুকেও ভিডিও শেয়ার করে আয় করা যায় এ ব্যাপারে দিক নির্দেশনা দেয়ার জন্য রয়েছে একটি সেশন। কন্টেন্ট ক্রিয়েটর এবং মেসেঞ্জার বট নিয়েও রয়েছে আলাদা আলাদা সেশন এবং রয়েছে ফেসবুক উদ্যোক্তাদের বিক্রয় বৃদ্ধির কৌশল বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ নলেজ সেশন।

ন্যাশনাল এফ-কমার্স প্রোগ্রামের মাধ্যমে এই শিল্পকে উৎসাহিত করতে ৫ জন এফ-কমার্স উদ্যোক্তা এবং ৫ জন এই শিল্পের পৃষ্ঠপোষককে পুরস্কৃত করা হবে।

আয়োজক প্রতিষ্ঠান গীকি সোশ্যাল লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান সাগর বলেন, আমি লক্ষ্য করেছি আজকের তারুণ্য বেশ বড় একটি সময় সোশ্যাল মিডিয়াতে কাটায় এবং সেটি নিছক বিনোদন ছাড়া আর কিছু নয়। সেই জায়গা থেকে আমি তারুণ্যের সামনে তুলে ধরতে চাই কিভাবে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে ক্যারিয়ার গড়া যায়, উদ্যোগ গ্রহণ করা যায়। সেই লক্ষ্যে তৃতীয়বারের মত আয়োজন করতে যাচ্ছি ন্যাশনাল এফ-কমার্স সামিট ২০১৯।

এফ-কমার্স ইলেক্ট্রনিক্স কমার্সের একটি অংশ। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেইসবুক ব্যবহার করে পন্য বা সেবা ক্রয় বিক্রয় এবং প্রচার করাই হচ্ছে এফ-কমার্স। অনলাইনে পন্য বা সেবা ক্রয় বিক্রয় এবং প্রচারের জন্য অতন্ত সহজ ও জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে এফ-কমার্স।

শেয়ার করুন: