চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘তুহিন ভাইয়ের ‘শিরোনামহীন’ ছাড়ার সিদ্ধান্তে আমরাও শকড্’

সংগীতের মানুষের কাছে এখন রীতিমত ‘হট টপিক’ হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে দেশের তুমুল শ্রোতাপ্রিয় ব্যান্ড দল ‘শিরোনামহীন’-এর ভোকাল তানযির তুহিনের ব্যান্ড ছাড়ার ঘোষণা। শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি আচমকা ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে তোলপাড় ফেলে দেন। ফেসবুকে তিনি লিখেন, আমি তানযির তুহিন, ব্যক্তিগত কারণে শিরোনামহীন ব্যান্ড থেকে সরে যাচ্ছি।’-এমন স্ট্যাটাসের পর দর্শক ভক্তদের মনে প্রশ্ন ওঠে, সত্যিই কি শিরোনামহীন ছেড়ে যাচ্ছেন জনপ্রিয় ভোকাল তুহিন? কিন্তু হঠাৎ কেনো এমন সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি? তাহলে কি দলের কারো সঙ্গে কোনো ঝামেলা হয়েছে? এসব প্রশ্নে আর জিজ্ঞাসায় ভরে যাচ্ছে সোশাল মাধ্যম। মুহূর্তেই সংবাদমাধ্যমেও জায়গা করে নেয় তুহিনের শিরোনামহীনে না থাকার বিষয়টি। আর এসব বিষয় নিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় চ্যানেল আই অনলাইন কথা বলে ব্যান্ডটির অন্যতম সদস্য ও কিবোর্ডিস্ট রাশেল কবীরের সঙ্গে। আর এবার পুরো বিষয়টি নিয়ে কথা হল শিরোনামহীনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও বেজ গিটারিস্ট জিয়াউর রহমান জিয়ার সঙ্গে-

সত্যিই কি ‘শিরোনামহীন’ ছেড়ে গেলেন তুহিন, এটা কি আপনাদের ব্যান্ডের সম্মলিত সিদ্ধান্ত?
এ নিয়ে আমরা এখন আর কোনো নিউজ চাই না। নানা ধরনের সংবাদে আমরা বিভ্রান্ত। আমরা যেটুকু জানি সেটুকু সবাইকে বলেছি যে, তুহিন ভাইয়ের হার্ট অ্যাটাক করেছে। ডাক্তাররা চান না যে তিনি এ অবস্থায় পারফর্ম করুক। আরো দুই মাস তাকে পুরোপুরি বিশ্রামে থাকতে হবে। হয়তো এমন ডিপ্রেশনে তিনি আচমক এই সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকতে পারেন। কিন্তু সেটা আমরা জানি না। সত্যিই জানি না।

হঠাৎ দল ছাড়ার ঘোষণা দেয়ার কারণ কি তাহলে, এমন সিদ্ধান্তে আপনারা কি ভাবছেন এখন?
তুহিন ভাইয়ের এমন সিদ্ধান্তে আমরা শকড। তিনি অসুস্থ হওয়ার পরও তার সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে দল নিয়ে। ব্যান্ডকে কিভাবে এগিয়ে নেয়া যায় সে বিষয়ে আমাদের দলের কথা হয়েছে। কিন্তু তার স্ট্যাটাসটা আসলে আমাদের জন্যও যথেষ্ট শকিং। আমরা জানতামই না যে তুহিন ভাই এমন একটা সিদ্ধান্ত নিবেন।



তাহলে ‘শিরোনামহীন’ ছাড়ার সিদ্ধান্ত একা নিলেন তুহিন ভাই?
আমাদের সঙ্গে এ বিষয়ে তুহিন ভাইয়ের কোনো কথা হয়নি। এটা সম্পূর্ণই তার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। মতামতও হইতে পারে। আমরা আসলে সবার মতো বিভ্রান্তিতে আছি।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু শোনা যাচ্ছে তুহিন ভাই ‘শিরোনামহীন’-এ থাকছেন না এমন ঘোষণার পর আপনারা নতুন ভোকালও ঠিক করে ফেলেছেন?
এমন তথ্য কোথায় পেলেন? আমরাতো জানি না। কে বললো এটা?

আপনার বরাত দিয়ে বেশকিছু মিডিয়াতেও এসেছে…
না। এমন কথা আমি কখনোই কাউকে, কোনো মিডিয়াকে বলিনি। নতুন ভোকালেরতো এখন প্রশ্নই আসে না।

তাহলে এমন খবর এলো কিভাবে?
মার্কেটেতো বিভিন্ন জিনিস শোনা যাচ্ছে এখন। কতো বিভ্রান্তিকর নিউজ দেখছি। তুহিন ভাই যখন অসুস্থ হয়ে গেলেন, তখন আমরা একটা ব্যান্ড মিটিং করি। তুহিন ভাইও ছিলেন। সেখানে আমরা তুহিন ভাইয়ের অসুস্থতার কারণে আমরা এবং দলে তার অনুপস্থিতিতে একজন গেস্ট ভোকাল নেয়ার সিদ্ধান্ত নেই। কিন্তু এমন শকিং একটা খবরের সময় নতুন ভোকাল ঠিক করার খবরে আমরা আরো মর্মাহত। শিরোনামহীন নতুন ভোকাল ঠিক করেছে, এরকম কিছু আমরা বলিনি কাউকে।

বিজ্ঞাপন