চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তাদের আয় কত?

দক্ষিণ ভারতের সিনেমা মানেই বিশাল সেট, বড় বাজেট, ড্রামা ও অ্যাকশনে ভরপুর। তামিল, তেলেগু, মালায়ালম, কন্নড় ছবিগুলো পুরো বিশ্বে আলাদা যায়গা করে নিয়েছে সিনেমাপ্রেমিদের মনে। দক্ষিণের অনেক তারকা বলিউডের অনেক নামি অভিনেতার চাইতেও বেশি আয় করেন। জেনে নিন জনপ্রিয় এসব তারকার আয় সম্পর্কে।

বিজয় দেভেরাকন্দ: অর্জুন রেড্ডি এবং গীতা গোবিন্দম এই দুটি ব্লকবাস্টারের পরে প্রতি সিনেমায় ১০ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নেন বিজয় দেভেরাকন্দ।

বিজ্ঞাপন

রাম চরণ: তেলেগু সুপার স্টার রাম চরণ প্রতি ছবিতে ১২ থেকে ১৭ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

আল্লু অর্জুন: প্রতিটি সিনেমায় ১৪ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন আল্লু অর্জুন।

কমল হাসান: তামিল এবং হিন্দি ছবির জনপ্রিয় নায়ক কমল হাসান প্রতি সিনেমায় ২৫ থেকে ৩০ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন।

ধনুশ: সেরা অভিনেতা ক্যাটাগরিতে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা ধানুশ প্রতি ছবিতে অভিনয়ের জন্য ১০ থেকে ১৫ কোটি রুপি নিয়ে থাকেন।

নাগার্জুনা: প্রতি ছবিতে কাজের জন্য ৭ থেকে ১০ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন এই তারকা।

সুরিয়া: দীর্ঘ অভিনয় জীবনে একাধিক হিট এবং ফ্লপ সিনেমা আছে সুরিয়ার। তিনি প্রতি সিনেমার জন্য ১৭ থেকে ২০ কোটি রুপি নিয়ে থাকেন।

বিক্রম: দক্ষিণের সিনেমার সবচাইতে ধনী তারকাদের একজন হলেন তামিল অভিনেতা বিক্রম। প্রতি সিনেমায় তিনি ১২ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন।

মহেশ বাবু: যে কোনো ছবিতে মহেশ বাবুকে নিতে চাইলে খরচ করতে হয় ১৮ কোটি রুপি।

প্রভাস: বাহুবলিতে কাজ করার জন্য প্রভাস নিয়েছিলেন ২৫ কোটি রুপি। বর্তমানে এর চাইতেও অনেক বেশি পারিশ্রমিক নিচ্ছেন প্রভাস।

জুনিয়র এনটিআর: প্রতি ছবিতে কাজের তারতম্যের ভিত্তিতে ১৮ থেকে ২০ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন জুনিয়র এনটিআর।

রজনীকান্ত: দক্ষিণ ভারতের সবচাইতে ধনী তারকাদের একজন হলেন রজনীকান্ত। তিনি প্রতি ছবিতে ৫০-৬০ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন। পিঙ্ক ভিলা

Bellow Post-Green View