চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঢাকার শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সংবর্ধনা

‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ ঢাকা বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সংবর্ধনা দিয়েছে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়। এসময় জয়িতাদের নারী ও সমাজ উন্নয়নে নিরবিচ্ছিন্নভাবেই ভুমিকা রাখার আহ্বান জনিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

একাত্তরের বীরাঙ্গনা শেখ ফাতেমা আলী। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় সদ্য বিবাহিতা এই তরুণী পাকিস্তানি; বাহিনী ও এদেশীয় দোশরদের ক্যাম্পে বন্দী ছিলেন দীর্ঘদিন। তিনি বলেন, ‘আজ মনে হচ্ছে আমি সত্যিকারের আমি প্রকৃত এক সম্মানিত নারী। আমার জানা মতে আরো এমন ৮০ থেকে ১০০ জন বীরাঙ্গনা আছে যারা কখনোই স্বীকৃতি পাননি। তাদের স্বীকৃতির জন্য আমি সরকারের কাছে আকুল আবেদন জানাচ্ছি।’

একজন সফল নারীর মূর্ত প্রতিচ্ছবি ‘জয়িতা’। দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজিত হলো ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ ঢাকা বিভাগীয় পর্যায়। অর্থনীতি, শিক্ষা ও চাকরি, সফল জননী, নির্যাতনের বিভীষিকা এবং সমাজ উন্নয়ন এই পাঁচটি ক্যাটাগরিতে দেয়া জয়িতার সম্মাননা পেয়েছেন পাঁচ নারী।

প্রতিবন্ধকতা সত্বেও এগিয়ে যাবার পথ পরিক্রমায় জয়িতাদের গল্প তাই যেমন আনন্দের তেমন বেদনারও। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড.ফারজানা বলেন,‘জয়িতা হয়ে আপনি কি করবেন সেই দায়িত্ব এখন আপনাদের উপর। জয়িতা হয়ে আপনি পিছিয়ে পড়া নারীদের নিয়ে চিন্তা করবেন না, আমাদের পথ দেখাবেন না সেটা ভালো হবে না।’

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ বলেন, ‘জেলা প্রশাসক ও কমিশনাররা এখানে আছেন, তাদের কাছে আমার অনুরোধ বিভিন্ন জেলায় যারা জয়িতা হয়েছেন, যখন জাতীয় অনুষ্ঠান হবে তখন তাদের কার্ড দিতে ভুলবেন না। আপনারা তাদের সম্মানিত করলে জণগণ তাদের আরো বেশি চিনবে এবং তাদের সম্মান আরো বেড়ে যাবে।’