চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঢাকার বায়ুদূষণ কমেছে

করোনাভাইরাসের সঙ্কটের মধ্যে রাজধানী ঢাকার বায়ুদূষণ পরিস্থিতি উন্নতি হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন মেগাসিটিগুলোর মধ্যে তুলনামূলক চিত্রে বায়ুদূষণে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় আছে ভারতের মুম্বাই, আর ওই তালিকায় ২৫ নম্বরে থেকে অনেকটা সহনীয় অবস্থায় আছে ঢাকা।

বায়ুদূষণ মনিটর করা সেবাসংস্থা এয়ার মেটারস এর ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

গত ২১ মার্চের হিসেবে বায়ুদূষণের শীর্ষে ছিল ঢাকা, সেদিন বায়ুর মানের সূচক ৩০০–এর কাছাকাছি চলে গিয়েছিল। করোনার কারণে লকডাউন পরিস্থিতিতে আজ (২০ এপ্রিল) প্রায় একমাস পরে ঢাকার বায়ু মান সূচক ৯২। আর সবচেয়ে খারাপ অবস্থানে থাকা মুম্বাইয়ের বায়ু মান সূচক ৪৮২।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তথ্য অনুযায়ী, ঢাকার চেয়ে ভাল অবস্থানে রয়েছে বন্দর নগরী চট্টগ্রাম, সেখানকার বায়ু মান সূচক ৫৪ এবং বরিশালের বায়ু মান সূচক ৪১। সারাবিশ্বের বিভিন্ন বড় বড় শহরের ওই তালিকায় বায়ু মান সূচক ৫ নিয়ে সবচেয়ে ভাল অবস্থানে রয়েছে হেলসিংকি ও ক্যামব্রিজ।

পরিবেশবিদদের মতে, বায়ু প্রবাহ, বৃষ্টিপাত, কারখানা-গণপরিবনসহ অন্য স্থানের দূষণের সঙ্গে ঢাকাসহ আশেপাশের বায়ুর মান নির্ভর করে। বর্তমানে বিভিন্ন কলকারখানা ও গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ঢাকার বায়ুমানের অনেক উন্নতি হয়েছে।

আন্তর্জাতিক মান অনুসারে বায়ুর মান শূন্য থেকে ৫০ থাকা মানে বায়ু স্বাস্থ্যকর। ৫০ থেকে ১০০ হচ্ছে সহনীয় অবস্থা। ১০০ থেকে ১৫০ সংবেদনশীল, ১৫০ থেকে ২০০ অস্বাস্থ্যকর, ২০০ থেকে ৩০০ খুবই অস্বাস্থ্যকর, ৩০০ থেকে ৫০০ হচ্ছে বিপজ্জনক অবস্থা। সেহিসেবে ঢাকার বর্তমান বায়ু মান পরিস্থিতি সংবেদনশীল। দিনের বিভিন্ন সময়ে এই বায়ুর মান প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল।