চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ড্রেসিংরুমে কথা বলার শক্তিও হারিয়ে ফেলেছিলেন মেসি

হতাশ অভিব্যক্তি, কোমরে হাত। প্রতিবার হারের পর লিওনেল মেসির এই ভঙ্গিটাও বিশ্ব ফুটবলে এখন বিশেষ পরিচিত। কিন্তু শুক্রবার যেটা হয়েছে সেটা কখনো দুঃস্বপ্নেও মেসির কল্পনায় এসেছে কিনা সেটা ভাবনার বিষয়।

বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে হেরে আরো এক চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের স্বপ্ন বিসর্জন দেবার পর তার যে চেহারা ড্রেসিং রুমে দেখা গেছে, সেটা তার সতীর্থরাও বোধহয় কখনো ভুলবেন না!

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

না মেসি কোন হইচই করেননি। করেননি শোরগোলও। কিন্তু ম্যাচ শেষে যখন মাঠ ছেড়ে ড্রেসিং রুমে ফিরছিলেন তখন তার ফেরাটা শেল হয়ে বুকে বেধার কথা মেসির পরম ভক্তদের। তার একেকটা পদক্ষেপে কেউ যেন দুই পায়ে ভীষণ ভারি দুই পাথর বেঁধে দিয়েছে। আর লজ্জা-অপমান আর শোকে খুব কাছের ড্রেসিং রুমটাও তার জন্য যেন ভীষণ দূরের এক পথ!

ড্রেসিং রুমেও মেসির এক ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে ড্রেসিং রুমের বাইরে পানির বাক্সের উপর নির্বাক বসে বার্সা অধিনায়ক। এমন হারের পর দলকে কিছু বলে যে সাহস যোগাবেন সেই শক্তিটুকুও হারিয়ে ফেলার স্পষ্ট লক্ষণ তার চোখে। একটু দূরে দরজার সামনে দাঁড়িয়ে বার্সা গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের-স্টেগেন, তারও কথা বলার শক্তি যেন হারিয়ে গেছে। অধিনায়ককে কিছু বলে যে সান্ত্বনা দেবেন সেই শক্তিটুকুও যেন তার মাঝে ছিলো না।

অবশ্য এমন হারের পর কথা বলার ইচ্ছা বা শক্তি হারিয়ে বসা অসম্ভব কিছু না। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে ২০০৭ সালের পর শিরোপাহীন এক মৌসুম শেষ করার গ্লানি। সেটাও আবার মেসির নেতৃত্বেই। লজ্জা আর গ্লানি মিলিয়ে একটা খেলোয়াড়ের তাৎক্ষনিক যে চেহারা সেটাই ফুটে ছিলো মেসির মুখে ড্রেসিং রুমে।