চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ডিসেম্বরে বাজারে আসবে মডার্নার করোনা ভ্যাকসিন

৯৪.১ শতাংশ কার্যকরের দাবি

ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি মডার্না ডিসেম্বরের মধ্যেই করোনাভাইরাসের দুই কোটি ডোজ ভ্যাকসিন তৈরি করবে। সোমবার কোম্পানির পক্ষ থেকে এমন ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। করোনার এই ভ্যাকসিন এক মাস অন্তর দুবার দিতে হবে। এক কোটি মানুষের জন্য পর্যাপ্ত হবে প্রথম কিস্তিতে উৎপাদনের দুই কোটি ডোজ টিকা। 

মডার্নার দাবি, করোনার বিরুদ্ধে এই ভ্যাকসিন ৯৪.১ শতাংশ কার্যকর।

বিজ্ঞাপন

অত্যধিক ঝুঁকিপূর্ণ রোগীর উপর ভ্যাকসিনটি ১০০ শতাংশ কাজ করে বলে দাবি করেছে ওই সংস্থা। মডার্নার প্রধান মেডিক্যাল অফিসার টাল জ্যাক্স বলেন, আমাদের বিশ্বাস, আমরা এমন একটা ভ্যাকসিন তৈরি করতে পেরেছি যা খুবই কাজ করে।

ফাইজারের পর মডার্নাও তাদের তৈরি ভ্যাকসিন ছাড়পত্র দেওয়ার জন্য আবেদন জানাল আমেরিকা এবং ইউরোপের সংস্থার কাছে।

বিজ্ঞাপন

সংস্থার এক বিবৃতি বলছে, ‘আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)–এর কাছে মডার্না এই টিকাকে ছাড়পত্র দেওয়ার জন্য আবেদন করেছে। সেই সঙ্গে ইউরোপিয় মেডিসিনস এজেন্সির কাছেও এই টিকাকে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে বৈধতা দেওয়ার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়েছে’।

ইউনিভার্সিটি অব রিডিং-এর বায়োমেডিক্যল টেকনোলজির শিক্ষক আলেকজান্ডার এডওয়ার্ড বলেন, ‘এটা দুর্দান্ত ঘটনা। যত বেশি ট্রায়ালের তথ্য আমরা পাব, ততই কোভিডের বিরুদ্ধে আমাদের গবেষণা সফল হবে।

একই ছাড়পত্রের জন্য সম্প্রতি আবেদন জানিয়েছে ফাইজারও। ইতিমধ্যেই ইউরোপের সংস্থার কাছে ফাইজারের ডেটা পৌঁছে গিয়েছে। তারা তা পর্যালোচনা করে দেখছে। অ্যাস্ট্রাজেনেকা এবং অক্সফোর্ডের তৈরি ভ্যাকসিনের তথ্যও এখন পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

মডার্না বলেছে, ইউরোপের কাছ থেকে দ্রুত এই টিকার ছাড়পত্র মিলবে। ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর উপর এই টিকা প্রয়োগ করে তথ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। একটি সূত্রের মতে, এর মধ্যে অত্যধিক ঝুঁকিপূর্ণ রোগীর উপর এই টিকা ১০০ শতাংশ কার্যকর।

তবে মডার্নার টিকা বাজারে এলে তার দাম অ্যাস্ট্রাজেনেকা বা ফাইজারের থেকে বেশি হবে বলেই মনে করছেন অনেকে।