চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ডিভোর্স পেপার দেখেই তামিমাকে বিয়ে করেছি: নাসির

আইন মেনেই তামিমা সুলতানাকে বিয়ে করেছেন, এমন দাবি ক্রিকেটার নাসির হোসেনের। তামিমা আগের স্বামীকে তালাক না দিয়ে নাসিরকে বিয়ে করেছে এমন অভিযোগ ওঠার পর নবদম্পতি বুধবার সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলন করে ডিভোর্স পেপার সাংবাদিকদের দেখান। ঘোষণা দেন আইনগতভাবেই তারা লড়বেন মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে।

নাসির ও তার সদ্য বিবাহিতা স্ত্রী তামিমার বিরুদ্ধে বুধবারই মামলা দায়ের করেছেন তামিমার সাবেক স্বামী মো. রাকিব হাসান। দিন পার না হতেই মিডিয়ার সামনে হাজির হলেন নাসির-তামিমা জুটি।

সংবাদ সম্মেলনে নাসির বলেন, ‘আমি তামিমাকে চিনি প্রায় চার-সাড়ে চার বছর ধরে। সে আমার খুব ভালো একটা বন্ধু ছিল। তারপর আমারা প্রেম এবং বিয়ে করি। আমরা আইনগতভাবে ইসলামী শরিয়াহ মেনে সবাইকে জানিয়ে বিয়ে করেছি। আমাদের মনে যদি কিছু থাকতো এভাবে ওপেনলি বিয়ে করতাম না। আমরা সবাইকে জানিয়ে ধুমধাম করে বিয়ে করেছি। তামিমার আগে বিয়ে হয়েছিল, বাচ্চা আছে, ডিভোর্স হয়েছে। সব জেনেই তাকে বিয়ে করেছি। ডিভোর্স পেপার দেখেই বিয়ে করেছি।’

বিজ্ঞাপন

‘চাইলেই আমি ফেসবুকে এসে ডিভোর্স পেপার নিয়ে সবাইকে দেখাতে পারতাম। আমি আইনগতভাবেই এসেছি। আপনাদের কাছে একটাই অনুরোধ, এসব (ফেক নিউজ) থেকে বিরত থাকেন, একটা ভুল নিউজ একটা পোস্ট খারাপের দিকে ঠেলে দেয়। মিডিয়া সঠিক তথ্য জেনে মানুষের কাছে পৌঁছাবে। না জেনে করা থেকে যেন বিরত থাকে। আজকে তামিমার সাথে হয়েছে, কাল অন্যকারও সঙ্গেও হতে পারে।’

স্ত্রীকে নিয়ে নাসির বলেন, ‘এতদিন সে শুধু তামিমা ছিল, এখন সে হচ্ছে তামিমা হোসেন। আমি চাইব না আমার বউয়ের দিকে কেউ আঙুল তুলে কথা বলুক এবং আমার বউকে নানান ধরনের কথা বলুক। যেই যে ধরনের কথা বলছে না কেনো, আমি আইগতভাবে ব্যবস্থা নেবো।’

রাকিব প্রসঙ্গে তামিমা বলেন, ‘আমাদের বিয়ে হয়েছিল এবং একটা বাচ্চা আছে। এটা ছাড়া রাকিব মিডিয়ায় যত কথা বলেছে সব মিথ্যা। ২০১৭ সালে আমাদের ডিভোর্স হয়।’