চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

ডিন এলগারে সিরিজে সমতায় ফিরল প্রোটিয়ারা

বিজ্ঞাপন

জোহানেসবার্গ টেস্টের চতুর্থ দিনে বৃষ্টির বাগড়া ছিল। তবে বৃষ্টি আফ্রিকানদের অপেক্ষা বাড়ালেও রক্ষাকবচ হতে পারেনি ভারতের। একদিন হাতে রেখে ৭ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে জিতে সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে স্বাগতিকরা।

তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে জোহানেসবার্গে ঘুরে দাঁড়ায় প্রোটিয়ারা। ডিন এলগারের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে জয় নিয়ে সিরিজে ১-১ সমতায় ফিরেছে সাউথ আফ্রিকা। সিরিজ জিততে ১১ জানুয়ারি ক্যাপ টাউনে মুখোমুখি হবে দু দল।

pap-punno

জয়ের জন্য ১২২ রান দূরে থেকে বৃষ্টি বিঘ্নিত দিনে মাঠে নামে এলগারের দল। হাতে তখনও ৮ উইকেট রয়েছে প্রোটিয়াদের। তবে প্রথম ম্যাচ হারায় শঙ্কা ছিল। তার উপর আফ্রিকার বিরূপ কন্ডিশন। তবে নিজেদের পরিচিত কন্ডিশনে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে গেছে এলগার। আগের দিনে ১০ রানে অপরাজিত ফন ডার ডুসেন এদিন যোগ করেন ৩০ রান। মোহাম্মদ শামির বলে পূজারার হাতে ধরাশায়ী হন। তবে অপর প্রান্তে এলগার ছিলেন সাবলীল। বাকি কাজ টুকো সেরেছেন টেমবা বাভুমাকে নিয়ে। ব্যাক্তিগত ৯৬ রানের যুতসই ইনিংস খেলে জয় নিয়ে ফিরিছেন। বাভুমার ব্যাট থেকে আসে ২৩ রান।

দ্য ওয়ান্ডারার্সে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ২৬৬ রানে অলআউট হয় ভারত। শেষ ইনিংসে প্রোটিয়াদের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২২৯ রান। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে এলগারের দৃঢ়তায় ২ উইকেটে ১১৮ রান তুলে দিন শেষ করে প্রোটিয়ারা।

Bkash May Banner

দিনের শুরুটা অবশ্য ভালোই হয়েছিল সফরকারী ভারতের। পূজারা-রাহানের জুটি এদিন যোগ করেছে আরও ৫৯ রান। প্রোটিয়াদের হয়ে প্রথম আঘাত হানেন রাবাদা, রাহানেকে ফেরান ফিফটির পর।

ব্যক্তিগত ৫৩ রানে পূজারাকেও এলডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন রাবাদা। পরে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন-আপ। শেষদিকে শার্দূল ঠাকুর ও হনুমা বিহারী কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন। ২৮ রানে জানসেনের শিকার হয়ে শার্দূল যখন সাজঘরে ফেরেন, ভারতের স্কোর তখন ২২৫। সিরাজকে বোল্ড করে ভারতের ইনিংসের ইতি টানেন লুনগি এনগিদি।

তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন এনগিদি, রাবাদা ও জানসেন। বাকি একটি উইকেট নিয়েছেন ডুয়ানে অলিভিয়ের।

এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২০২ রানে অলঅউট হয় লোকেশ রাহুলের দল। অধিনায়ক রাহুল ছাড়া অর্ধশতকের দেখা পাননি আর কোনো ব্যাটার। বিপরীতে মারর্কো জেনসের ৪ উইকেটের সাথে তিনটি করে উইকেট তুলেছে রাবাদা ও ওলিভিয়ের।

জবাবে ২৭ রানের লিড নিয়ে ২২৯ রানে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা। যেখানে শার্দূল ঠাকুর হতাশ করেন প্রোটিয়াদের ৭ ব্যাটারকে।

বিজ্ঞাপন

Bellow Post-Green View
Bkash May offer