চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টয়া-খায়রুলকে নিয়ে অনমের ‘একদিন বৃষ্টিতে বিকেলে’

ভালোবাসা দিবসে (১৪ ফেব্রুয়ারি) দেশের ১৮টি টিভি চ্যানেলে রাত ৮টায় একযোগে প্রচার হবে ‘একদিন বৃষ্টিতে বিকেলে’

প্রতি বছর ভালোবাসা দিবসে দর্শকের পাঠানো গল্পে তিনটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করে ‘ক্লোজআপ’। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি।

‘ক্লোজআপ কাছে আসার গল্প’-শিরোনামে তিনজন দর্শকের গল্পে নির্মিত হয়েছে তিনটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। যার মধ্যে আব্দুল্লাহ আর রাফির পাঠানো গল্প নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক অনম বিশ্বাস নির্মাণ করেছেন ‘একদিন বৃষ্টিতে বিকেলে’ শিরোনামের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

যেখানে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী মুমতাহিনা টয়া ও খায়রুল বাশার। উল্লেখযোগ্য আরো একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাহেদ আলী সুজন। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রর শুটিং হয়েছে ঢাকার বিভিন্ন লোকেশনে।

বিজ্ঞাপন

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি প্রসঙ্গে অনম বিশ্বাস বলেন, এই নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মত দর্শকের পাঠানো কাছে আসার গল্প নিয়ে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র পরিচালনা করছি। প্রতিবারের মত দর্শক এবারো মিষ্টি প্রেমের গল্প দেখতে দেখতে পারবেন আশা করি। গল্পে দেখা যাবে উবার ড্রাইভার রনি এবং কস্টিউম ডিজাইনার শ্রুতির রোমান্টিক সম্পর্কের গল্প।

‘একদিন বৃষ্টিতে বিকেলে’ প্রসঙ্গে মুমতাহিনা চৌধুরী টয়া বলেন, আমি দুই বছর পর ক্লোজআপ কাছে আসার গল্পে কাজ করলাম। বিশেষ দিবসের এই কাজটি আমার খুবই পছন্দের। এটা নিয়ে দর্শকদের মাঝেও বাড়তি আগ্রহ থাকে। এবার করলাম অনম দাদার সঙ্গে কাজ করলাম। আশা করি অনমদা যেমনটা চেয়েছেন, তার কিছুটা হলেও করতে পেরেছি।

খায়রুল বাশার বলেন, গল্প নিয়ে বলার কিছুই নেই। আগের বার অনম দাদার সঙ্গে কাজ করছিলাম। এবারও সেই সুযোগ পেয়েছি। আসলে একটা চরিত্রকে উনি যতভাবে বিশ্লেষণ করেন তার কিছুটা ঘটাতে পারলেও চরিত্রের একটা বিশেষ চিত্রায়ন ঘটে যায়।

ভালোবাসা দিবসে (১৪ ফেব্রুয়ারি) দেশের ১৬টি টিভি চ্যানেলে রাত ৮টায় একযোগে প্রচার হবে ‘একদিন বৃষ্টিতে বিকেলে’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি। এছাড়া খুব দ্রুতই দর্শকরা ইউটিউবে উপভোগ করতে পারবেন।