চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ট্রাম্প নিজেকে ‘বিজয়ী’ দাবি করার পরই তেলের দাম বেড়েছে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা না হলেও ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেকে বিজয়ী দাবি করায় তেলের দাম প্রায় ৩ শতাংশর মতো বৃদ্ধি পেয়েছে।

ট্রাম্প প্রশাসনের ইরানের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কারণে এবং সৌদি নেতৃত্বাধীন ওপেকের প্রভাবে তেলের দাম বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম রয়র্টাস।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেনের ইরানের প্রতি সবুজ নীতি এবং নমনীয় অবস্থানের কারণে তার এ জয়কে তেলের দামের প্রভাবক হিসেবে ধরা হচ্ছে।

ওই প্রদিবেদনে বলা হয়েছে ট্রাম্প বিজয়ের ঘোষণা দেয়ার পরপরই ওয়েস্ট টেক্সাসে ব্যারেল প্রতি  ১.০৩% সেন্ট বা ২.৬৬% বেড়েছে।

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ওয়েভের কারণে জ্বালানি তেলের চাহিদা ধরে রাখতে ওপেকভুক্ত তেল উৎপাদনকারী দেশগুলো ও রাশিয়া জানুয়ারি থেকে তেল উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিল।

ভোট গণনার মধ্যেই স্থানীয় সময় বুধবার প্রথম প্রহরে হোয়াইট হাউজ থেকে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণের শুরুতে পরিবার ও সমর্থকদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

এরপর বলেন, ‘প্রবল সমর্থনের জন্য মার্কিন জনগণকে ধন্যবাদ। জর্জিয়া ও নর্থ ক্যারোলিনায় আমরা জয়লাভ করেছি। মিশিগানে আমরা ৩ লাখ ভোটে জয়লাভ করবো।’

বিজ্ঞাপন

পেনসিলভানিয়াতেও এগিয়ে রয়েছেন দাবি করে নিজের বক্তব্যে বিজয়ী সুরে ফ্লোরিডায় জয় উদযাপন করেন ট্রাম্প। যদিও এর আগে আরেক প্রার্থী জো বাইডেনও একই দাবি করেন।

৫০টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে ৪১টির ফলাফলের পূর্বাভাস দিয়ে বিবিসি বলছে, সর্বশেষ গণনা অনুযায়ী ২২৪টি ইলেক্টোরাল ভোটে বাইডেন এগিয়ে রয়েছেন। আর রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প এগিয়ে ২১৩টি ভোটে।

তবে সিএনএন বলছে, ট্রাম্প ও বাইডেনের লড়াইতে দুজনের পার্থক্য খুবই কম। বাইডেন সেখানে ২২০ আসনে এগিয়ে থাকলেও এখন পর্যন্ত ফল ঘোষণা না হওয়া ইলেক্টোরাল ভোটের ১০১টির মধ্যে ৮০টিতে এগিয়ে আছেন ট্রাম্প।

এই হিসাব থেকে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো বলছে, দ্বিতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট হওয়ার পথে রয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে হলে একজন প্রার্থীকে ৫৩৮টি ইলেক্টোরাল ভোটের মধ্যে ২৭০টি ভোট পেতে হবে।

ডোনাল্ড ট্রাম্প জয় পেতে যাচ্ছেন, ফ্লোরিডা, লওয়া, আরকানসাস, ওকলাহোমা, টেনেসি, মিসিসিপি, সাউথ ক্যারোলাইনা, কেন্টাকি, ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া, নর্থ ডাকোটা, সাউথ ডাকোটা, ইন্ডিয়ানা, আলাবামা, লুইজিয়ানা, নেব্রাস্কা, উমিং, মিসৌরি ও উটাহ অঙ্গরাজ্যে।

জো বাইডেন জিততে চলেছেন, নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন, ক্যালিফোর্নিয়া, নিউ জার্সি, রোড আইল্যান্ড, ম্যাসাচুসেটস, মেরিল্যান্ড, ইলিনয়, কানেকটিকাট, ডেলাওয়্যার, ভার্জিনিয়া, ভারমন্ট, নিউ মেক্সিকো, মেরিল্যান্ড, কলরাডো, ওরেগন, ডিসট্রিক্ট অফ কলাম্বিয়া ও নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যে।

যদিও নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা আগেই বলে রেখেছেন, চূড়ান্ত ফলাফল পেতে কয়েকদিন কিংবা কয়েক সপ্তাহ লেগে যেতে পারে।