চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টেস্টের নেতৃত্বও ছাড়লেন কোহলি

সাউথ আফ্রিকায় আশা জাগিয়েও সিরিজ হার মানতে পারছেন না বিরাট কোহলি। তিনি এতটাই হতাশ হয়েছেন যে সরে দাঁড়িয়েছেন ভারতের সাদা পোশাকের নেতৃত্ব থেকেও।

শনিবার টুইটারে আবেগপ্রবণ এক পোস্টে বলেন, অধিনায়কত্ব আর না। এবার ভারতের জার্সিতে খেলবেন ব্যাটসম্যান হিসেবে।

ভারতের ক্রিকেটে বোর্ড বিসিসিআই এক টুইটে কোহলির অধিনায়কত্ব ছাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপ শুরুর আগে অনেকটা অভিমান করেই ছেড়েছিলেন টি-টুয়েন্টির নেতৃত্ব। কোহলিকে অনেক অনুরোধ করেও নেতৃত্বে ফেরাতে না পারায় ওয়ানডে নেতৃত্ব থেকেও তাকে বসিয়ে দেয় ভারতের বোর্ড। সাদা বলের অধিনায়কত্বে বসে সতীর্থ ওপেনার রোহিত শর্মা। সেই বিতর্ক এখনও চলছে। এর মাঝেই ছেড়ে দিলেন সাদা পোশাকের নেতৃত্বও।

টুইটে বিরাট লেখেন, ‘দলকে সঠিক দিকে নিতে সাত বছরের প্রতিটা দিন পরিশ্রম করেছি। নিরবিচ্ছিন্ন অধ্যবসায় বজায় রেখেছি। চূড়ান্ত সততার সঙ্গে কাজ করেছি। কোনো ফাঁক রাখিনি। সবকিছুকেই কোনও না কোনও সময় থামতে হয়। আমার কাছে ভারতের টেস্ট দলের অধিনায়কত্ব (ছাড়ার) সময় এসেছে।’

‘‘দীর্ঘ যাত্রায় প্রচুর সাফল্য এসেছে। ব্যর্থতারও সম্মুখীন হয়েছি। কিন্তু কখনও প্রয়াস বা আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি হয়নি। আমি যা কিছু করি, তাতে বরাবর ১২০ শতাংশ উজাড় করে দেওয়ার তত্ত্বে বিশ্বাস করেছি। আমি যদি সেটা করতে না পারি, তাহলে আমি ভালোভাবে জানি যে সেটা করা আমার পক্ষে ঠিক নয়। আমার হৃদয়ে পুরোপুরি স্বচ্ছতা আছে। আমার দলের প্রতি আমি অসত্‍ হতে পারি না।’

সাত বছর দায়িত্বে ৬৮টি টেস্টে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়ে ৪০টিতে জয় এনেছেন বিরাট। নিজের বিদায়ী বার্তায় সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির কথা বিশেষ ভাবে উল্লেখ করেছেন বিরাট। ধন্যবাদ জানিয়েছেন কোচ থেকে সাপোর্টিং স্টাফ সবাইকে। অধিনায়কত্বের জন্য তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছে বিসিসিআইকেও।

বিজ্ঞাপন