চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টেন্ডুলকারের রেকর্ড কাড়ার সঙ্গে সিরিজও কোহলির

শচীন টেন্ডুলকারের এলিট ব্যাটিং রেকর্ডগুলোর জন্য হুমকি মানা হয় তাকে। বিরাট কোহলি সেই হুমকির পারদ চড়িয়েই যাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার দলকে সিরিজ জেতানো এক সেঞ্চুরি করার পথে কিংবদন্তি লিটল মাস্টারের আরেকটি রেকর্ড নিজের দখলে নিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক।

জ্যামাইকার স্যাবিনা পার্কে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেটে মাত্র ২০৫ রান তুলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাব দিতে নেমে ৭৯ বল ও ৮ উইকেট হাতে রেখেই লক্ষ্যে নোঙর ফেলে ভারত।

Reneta June

সেইসঙ্গে সিরিজ জিতে নেয় ৩-১ ব্যবধানে। প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

স্বাগতিকরা জিতলে সিরিজ ড্র হত। সেটি নিশ্চিতভাবেই পছন্দ হত না কোহলির। বোলাররা কাজের কাজটা করে দেওয়ার পরে তাই ব্যাট চওড়া করলেন নিজেই। ক্যাপ্টেন্স নকটি অপরাজিত ১১১ রানের। ১২ চার ও ২ ছয়ে ১১৫ বলে সাজানো। প্রথম ফিফটি ছুঁয়েছেন ৬৭ বলে, পরেরটি ৪১ বলে।

ক্যারিয়ারের ২৮তম ওয়ানডে শতকটির পথেই টেন্ডুলকারের অনন্য একটি রেকর্ড কেড়ে নিয়েছেন কোহলি। এখন রান তাড়া করার পথে কোহলির শতক হল রেকর্ড ১৮টি। টেন্ডুলকার এতদিন ১৭টি শতক নিয়ে শীর্ষে ছিলেন। টেন্ডুলকারের রান তাড়ার পথের সেঞ্চুরিগুলো করতে ২৩২ ইনিংস লেগেছিল। কোহলি সেটি আবার ১০২ ইনিংসেই টপকে গেলেন।

কোহলির শতকের দিনে ম্যাচটা সহজ করতে ব্যাট হাতে জ্বলে উঠেছিলেন দিনেশ কার্তিকও। অপরাজিত ৫০ এসেছে তার ব্যাটে। অধিনায়কের সঙ্গে জুটিটা অবিচ্ছিন্ন ১২২ রানের। এছাড়া রাহানের ব্যাটে এসেছে ৩৯!

আগে দুই ভাই কাইল হোপের ৪৬ ও শাই হোপের ৫১ রানে লড়াই করার পুঁজি পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জেসন হোল্ডার ৩৬ ও রোভম্যান পাওয়েল করেছেন ৩১ রান।

মোহাম্মদ সামি ৪৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে সেরা। ৩টি নিয়েছেন উমেশ যাদবের। একটি করে গেছে পান্ডিয়া ও কেদার যাদবের ঝুলিতে।