চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জকির বাহিনীর প্রধানসহ ৩ জন নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার ২৬ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে শালবাগান এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে রোহিঙ্গা ডাকাত জকির বাহিনীর মধ্যে বন্দুক যুদ্ধে জকিরসহ ৩ ডাকাত নিহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দেশি-বিদেশি ৯টি অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

কক্সবাজারস্থ র‌্যাব ১৫ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ জানিয়েছেন টেকনাফের শালবাগান পাহাড়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র নিয়ে রোহিঙ্গা ডাকাত অবস্থান করার গোপন সংবাদ পেয়ে র‌্যাবের একটি দল মঙ্গলবার বিকেলে অভিযানে নামে। বিকেল তিনটায় র‌্যাবের দল শালবাগান ঘিরে ফেলে।

বিজ্ঞাপন

এরপর বিকেল ৫টার দিকে র‌্যাবের দল পাহাড়ের চারিদিকে ঘিরে ফেললে জকির বাহিনী র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়লে দু’পক্ষের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধ লেগে যায়। একপর্যায়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে জকির বাহিনীর লোকজন পালিয়ে গেলে র‌্যাবের দল এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে জকির বাহিনীর প্রধান জকিরসহ তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে।

গোলাগুলিতে র‌্যাবের একজন সৈনিক গুলিবিদ্ধ হয়। ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে র‌্যাবের দল ২টি বিদেশি পিস্তল ২টি বন্দুক ৫টি ওয়ানশুটার গান ২৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে।

র‌্যাব-১৫ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান জানান দীর্ঘদিন ধরে রোহিঙ্গা ডাকাত জকির বাহিনী টেকনাফ উপজেলায় অবস্থিত নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প ২৬ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ পুরো শালবাগান পাহাড়ি এলাকায় ডাকাত বাহিনী গঠন করে। এই বাহিনীর বিরুদ্ধে হত্যা ডাকাতি গুমসহ ২০টিরও অধিক মামলা রয়েছে। নিহতদের জকির ডাকাত ও তার সহযোগী মনিরের পরিচয় সনাক্ত করা গেলেও অপর নিহতের পরিচয় জানাতে পারেনি র‌্যাব।

বিজ্ঞাপন