চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্টে বিদেশি খেলোয়াড় আনার ভাবনা

নভেম্বরের মাঝামাঝি পাঁচ দল নিয়ে টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্ট আয়োজন করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ঘরোয়া আসরে বিদেশি ক্রিকেটার আনার কথা ভাবা হচ্ছে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন এ ব্যাপারে কয়েকদিন পরই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে।

মঙ্গলবার বিসিবি কার্যালয়ে সভা শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে নাজমুল হাসান বলেন, ‘ঘরোয়া ওয়ানডে আসরের পরপরই আমরা আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্ট করতে যাচ্ছি। এটা কর্পোরেট লিগ হবে নাকি বিসিবি পৃষ্ঠপোষক হবে তা এখন পর্যন্ত আমরা চূড়ান্ত করিনি। কিন্তু এটা যে হতে যাচ্ছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

‘’আজকের সভায় একটা জিনিস ছিল বিদেশি ক্রিকেটার এলাউ করবো কি করবো না। এই একটা সিদ্ধান্তই আমি দিতে পারিনি আজকে, আজকের দিনটা সময় নিয়েছি। আমি বলেছি কাল-পরশুর মধ্যে ওদেরকে জানাবো। এছাড়া মোটামুটি সবই ফাইনাল, আমরা ৫টা দল নিয়ে টুর্নামেন্টটা করতে ইচ্ছুক। ৫টা দল হলে আমরা দেখেছি ৭৫ জন স্থানীয় খেলোয়াড়। সংখ্যাটা হলে ঠিক আছে। আমরা যে ধরণের চিন্তা ভাবনা করেছি ঐ ধরণের একটা টুর্নামেন্ট আমরা করতে পারবো।’’

বিজ্ঞাপন

বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, পাঁচ দলের টুর্নামেন্টে তিনটি প্রতিষ্ঠান দল করতে রাজি, ‘এটাই আলোচনা হচ্ছে, যেমন ধরেন পুরোটাই কর্পোরেট হবে কিনা অকশনে, বিদেশি ক্রিকেটার থাকলে অকশনে হবে নাকি ওপেন করে দেওয়া হবে যার যার মত নিয়ে আসবে, এই জিনিসগুলো চূড়ান্ত হয়নি। তবে অকশনই হবে। বিদেশি খেলোয়াড়দের ব্যাপারটা আদৌ হবে কীনা, নিলে কয়জন করে সেটা, এরপর ওপেন থাকবে, নাকি আমরা একটা পুল দিয়ে দিব এই সিদ্ধান্তগুলো নেওয়া হয়নি।’

‘’আসলে এই মুহূর্তে বলা কঠিন কর্পোরেট হবে কিনা। তবে তিনজনের সাথে কথা হয়েছে তিনজনই আগ্রহী। আমার কথা হচ্ছে আসলে আমরা যাদের কাছে গিয়েছি তারা কোনো না কোনোভাবে আমাদের (বিসিবি) সাথে জড়িত। কাজেই এটা যেহেতু খুব কম বাজেটের, এটা বিপিএলের মত অনেক টাকা বাজেটের করা হয়নি। সুতরাং আমার মনে হয় না সমস্যা হবে। সমস্যা হতে পারে লিগ (ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ) চালু করা নিয়ে।’’