চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টিবিসি পাতায়ার নতুন সভাপতি আব্দুল আলিম ও সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান

সুশৃঙ্খল নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন কমিটি পেল থাইল্যান্ডে বাংলাদেশিদের (রেজি: ১১/২৫৫২) রেজিস্ট্রিকৃত সংগঠন ‘থাইল্যান্ড-বাংলাদেশ পাতায়া’। গত ১২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে আব্দুল আলিম ও শামসুজ্জামান।

মহামারী করোনাভাইরাস এর কারণে পুরো বিশ্ব যখন স্থবির হয়ে পড়েছে, থাইল্যান্ড পাতায়ার বাঙালিরা যখন মানুষিকভাবে হতাশায় ভুগছিলেন ঠিক সেই মুহূর্তে এ নির্বাচন ঘোষণার মাধ্যমে কিছুটা প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে পেয়েছেন এখানে অবস্থানরত বাঙালিরা। এমনটাই জানিয়েছেন সেখানে বসবাসরত বেশ কয়েকজন বাঙালি।

বিজ্ঞাপন

একমাস ধরে নির্বাচনী প্রচারণা, অনুষ্ঠান ও নানান উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে গত ১২ ডিসেম্বর নির্বাচনটি সম্পন্ন করা হয়। বিকেল চারটা থেকে শুরু হয় ভোট গ্রহণ যা, শতভাগ ভোটার উপস্থিতির মধ্য দিয়ে রাত দশটায় শেষ হয়। ভোট শেষে নির্বাচন কমিশন থাই-বাংলাদেশি কমিউনিটি পাতায়া এর নতুন কমিটি ঘোষণা করেন। যেখানে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি নির্বাচিত হন আব্দুল আলিম (মোল্লা), বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান শামীম এবং সাংগঠনিক সম্পাদক পদে জয়ী হন মোহাম্মদ সোলায়মান।

বিজ্ঞাপন

এছাড়াও সিনিয়র সহ -সভাপতি হিসেবে আনিসুর রহমান, সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম শিশির, শহিদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে আরাফাত রহমান, সাইফুল ইসলাম (পবন), আলাউদ্দিন, লুৎফর রহমান, অফিস সম্পাদক ফয়সাল ইমতিয়াজ (অপু), অর্থ সম্পাদক তাওফিকুর রহমান, প্রচার সম্পাদক নুরুন নবী (জয়), সমাজ কল্যাণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন (নয়ন), ক্রীড়া সম্পাদক আরিফুর রহমান (লিখন), সাংস্কৃতিক সম্পাদক শ্রী রণধীর কুমার বোস, নারী ও শিশু বিষয়ক সম্পাদিকা পদে কোহিনুর আক্তার, কার্যনির্বাহী সদস্য পদে আসাদুজ্জামান মুন্না ও সারা ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

ফলাফল ঘোষণার পর ভোটারদের মধ্যে প্রচুর উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যায়। এসময় কয়েকজন ভোটারের সাথে কথা বললে এ প্রতিবেদককে তারা জানান, এ নির্বাচনে আমাদের পছন্দের প্রার্থীরা সিংহভাগ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এজন্য আমরা খুবই আনন্দিত। থাই-বাংলাদেশি কমিউনিটি ২০২০ এর নির্বাচনে ভোট দিতে পেরে আমরা সত্যি আনন্দিত। আমরা এ নির্বাচনকে ঘিরে দারুণ আনন্দ উপভোগ করেছি। এমন একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেয়ার জন্য আমরা নির্বাচন কমিশনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

উল্লেখ্য, অন্যান্য বছরের নির্বাচনের তুলনায় এবারের নির্বাচনে বেশ কিছু ভিন্নতা ছিলো লক্ষণীয়। দীর্ঘ বারো বছর ধরে থাই-বাংলাদেশি কমিউনিটি পাতায়ার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন পাতায়াস্থ বাঙালিদের স্বপ্নদ্রষ্টা হিসেবে খ্যাত জাহাঙ্গীর হোসেন। কিন্তু নতুনদের সুযোগ করে দেয়ার লক্ষ্যে তিনি এবারের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেননি। তার নেতৃত্বে তিনজন বিশিষ্ট নির্বাচন কমিশন গঠনের মাধ্যমে এবারের নির্বাচন ঘোষণা করা হয়।