চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টিএসসিতে সৈকতের সহযোগীদের ওপর ছাত্রদলের হামলা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে ডাকসুর সদ্য সাবেক সদস্য তানভীর হাসান সৈকতের সহযোগীদের উপর ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জসীম উদ্দীন হল ছাত্র সংসদের জিএস ইমাম হাসানসহ সৈকতের সহযোগী তিনজন আহত হয়েছে বলে জানা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন চ্যানেল আই অনলাইনকে জানান, বুধবার রাত পৌনে আটটার দিকে ক্যাম্পাসে ভিড় এড়াতে মাইকিং করার সময় এ ঘটনার শিকার হন তারা।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার সময় উপস্থিত দৈনিক কালের কন্ঠের নিজস্ব প্রতিবেদক রফিকুল ইসলাম চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, তখন রাত পৌনে আটটা বাজে। টিএসসিতে অনেক জনসমাগম ছিল। ভীড় এড়াতে সকলকে চলে যেতে মাইকিং করেন জসীমউদ্দিন হল সংসদের জিএস ইমাম হাসান৷ এসময় একটি সাদা প্রাইভেট কারে ছিলেন ছাত্রদলের একজন নেতা। খোঁজ নিয়ে জানা যায় তিনি সূর্যসেন হলের ছাত্রদলের আহবায়ক তাকে চলে যেতে নিষেধ করা হলে তর্কাতর্কি হয়। সেসময় টিএসসিতে ছাত্রদলের আরও ২০-২৫ জন নেতাকর্মী ছিল। তারা ইমামসহ বাকিদের মারধর করে। পরে সৈকতের সহযোগীরা সেটি প্রতিরোধ করতে গেলে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ক্যাম্পাস থেকে চলে যায়।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার আরেক প্রত্যক্ষদর্শী দৈনিক মানবজীবন পত্রিকার ফটো সাংবাদিক জীবন আহমেদ বলেন, ইমাম মাইকিং করে সবাইকে টিএসসি থেকে যেতে বললে উপস্থিত ছাত্রদলের ২০-৩০ জন নেতাকর্মী তাদের মারধর করে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে তানভীর হাসান সৈকত বলেন, আমরা প্রতিদিন সন্ধ্যায় টিএসসিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে কাজ করি। আজও তাই করছিলাম। ইমাম মাইকিং করছিল সবাইকে চলে যেতে। এসময় ছাত্রদলের সূর্যসেন হলের আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান ও তার সাথে ছাত্রদলের আরও নেতাকর্মী ইমামসহ কয়েকজনকে মারধর করে। এতে ইমাম পায়ে আঘাত পায় এবং আমাদের সাথে কাজ করা (টিএসসিতে ভাত বিক্রি করা খালার ছেলে) মানিকের হাত ভেঙ্গে যায়।

আহতদের চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলে আনা হয়েছে বলে জানান সৈকত।

জানতে চাইলে ছাত্রদলের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম রাকিব বলেন, একটা ছোটখাট ঘটনা ঘটেছিল। আমরা পরে আমাদের নেতাকর্মীদের নিয়ে সেখান থেকে চলে আসি।