চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টিএলটি’র ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠিত

দ্যা লাইব্রেরিয়ান টাইমস (টিএলটি) এর চতুর্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও অ্যাওয়ার্ড সিলেব্রেশন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল ৩ টায় ‘দি লাইব্রেরিয়ান টাইমস’ ভার্চুয়ালি এ অনুষ্ঠানের অয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যবিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক ড. এস এম মান্নান।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের স্বাধীনতার পঞ্চাশতম বছরে টিএলটি এই অনুষ্ঠানটি উদযাপন করে, তাই উদযাপনটি বাংলাদেশের গ্রন্থাগার পেশাজীবীদের জন্য বিশেষভাবে স্মরণীয়। গ্রন্থাগার এবং তথ্য পেশায় কর্মরত আন্তর্জাতিক নেতৃবৃন্দ তাদের অভিনন্দনমূলক বক্তৃতা এবং ডিজিটাল স্যুভেনিরের জন্য শুভেচ্ছ বাণী প্রেরণ করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব লাইব্রেরি এসোসিয়েশনস এন্ড ইনস্টিটিউশনস (ইফলা)’র সভাপতি ক্রিস্টিন ম্যাকক্যানিজ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডীন অধ্যাপক ড. নাসির উদ্দীন মিতুল, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটনের ডেপুটি পুলিশ কমিশনার বিজয় বশাক, গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের ডিজি আবু বক্কর সিদ্দিক, এসোসিয়েশন ফর ইনফরমেশন সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি (এএসআইএসএন্ডটি ) এর প্রেসিডেন্ট ও যুক্তরাষ্ট্রের সিমনস ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক ড. নারেশ আগারওয়াল, আমেরিকান লাইব্রেরি এসোসিয়েশন (এএলএ) এর সাবেক প্রেসিডেন্ট লইদা গার্সিয়া-ফেবো।

বাংলাদেশ থেকে কো-হোস্ট হিসেবে প্রোগ্রাম সঞ্চালনা করেন আদিবা আওলাদ মীর এবং নথ সাউথ ইউনিভার্সিটি সেন্ট্রাল লাইব্রেরীর ডেপুটি ডাইরেক্টর এম এম শোয়েব.
অস্ট্রেলিয়ার আরএমআইটি ইউনিভার্সিটির লাইব্রেরি অফিসার ও টিএলটির এডিটর ইন চিফ প্রদীপ রায়ের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের কর্মসূচী শুরু করা হয়I
প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হিসেবে ছিলেন সিঙ্গাপুরের তাংলিন ট্রাস্ট স্কুলের লাইব্রেরি অফিসার সৈয়দা মুক্তা বেগম।

অনুষ্ঠানে ৮টি বিভাগে মোট আট জনকে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। ড. মো: নাজিম উদ্দিন মেমোরিয়াল একাডেমিক অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন অধ্যাপক ড. এস এম মান্নান, এক্সিলেন্স একাডেমিক লাইব্রেরিয়ান অব ইয়ার নির্বাচিত হন শাহ আব্দুল কাবেজ, স্পেশাল লাইব্রেরিয়ান অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন এবিএম শফিক আলম, এক্সিলেন্স মেডিকেল লাইব্রেরিয়ান অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন মোঃ মনিরুল ইসলাম, এক্সিলেন্স স্কুল লাইব্রেরিয়ান অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন আফম কামরুল ইসলাম, পাবলিক লাইব্রেরিয়ান অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন সাজ্জাদুল করিম, স্টুডেন্ট অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন শাম্মি আখতার শিখা (ঢাবি) ও রিহানা খাতুন (রাবি)।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ গ্রস্থাগার সমিতি (ল্যাব), বাংলাদেশ গ্রন্থাগারিক ও তথ্যায়নবিদ সমিতি (বেলিড), মেডিকেল লাইব্রেরি এসোসিয়েশন (মেডল্যাব)  এবং বাংলাদেশ বিদ্যালয় গ্রন্থাগার সমিতি (এসল্যাব) এর নেতৃবৃন্দসহ দেশী-বিদেশী গ্রন্থাগার পেশাজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন