চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টাঙ্গাইলে পারিবারিক বিরোধে ধর্মের অপব্যবহার

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নটরডেম কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রকে খৃষ্টান ও নাস্তিক আখ্যা দিয়ে তার পরিবারকে সমাজচ্যুত করার অভিযোগটি নিয়ে তদন্তে নেমেছে প্রশাসন। তদন্ত সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন জমিসংক্রান্ত পারিবারিক বিরোধে জয়ী হবার জন্য উভয় পক্ষ ধর্মকে ব্যবহার করছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চলছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

তবে প্রশাসন বলছে ধর্ম নিয়ে যে পক্ষই ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের তরফপুর পাথালিয়া গ্রামের মৃত আবদুর রশিদ ও মফিজুল নামের দুই ভাইয়ের পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরেই চলছে জমি সংক্রান্ত বিরোধ। এ বিরোধ গিয়ে এখন ঠেকেছে তাদের সন্তান শরিফ মাহমুদ ও জুয়েল খানের মাঝে। সম্প্রতি তাদের বিরোধ নিষ্পত্তির লক্ষ্যে চলতি বছরের পহেলা মে সালিশি বৈঠকে বসে উভয় পরিবার। তবে বৈঠকে বিষয়টি নিস্পত্তি না হয়ে ঘটে হাতাহাতির ঘটনা। পরে শরিফ পক্ষ মামলা ঠুকে জুয়েল বিরুদ্ধে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয় ধর্মকে ব্যবহার করে ফায়দা লুটার অপচেষ্টা। প্রায় সাড়ে তিন পরে জুয়েল বাদি হয়ে শরিফসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে হামলা ও সমাজচ্যুত করা অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করে।

জুয়েলের পরিবারের বিরুদ্ধে অপরপক্ষ তুলেছে মসজিদ অবমাননা ও সামাজিক ব্যবস্থাপনা না মানার নানা অভিযোগ।

তবে জুয়েলের বাবা তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করছেন।

অন্যদিকে পারিবারিক বিরোধ আদালত পর্যন্ত গড়ানোর ফলে আদালতের বিষয়ে মন্তব্য না করে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কোনো পক্ষ ধর্মকে অপব্যবহার করলে তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে প্রশাসন।