চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টাঙ্গাইলে খুন ও অস্ত্র মামলায় ‘কোয়াটার রনি’ গ্রেপ্তার

একাধিক খুন ও অস্ত্র মামলায় অভিযুক্ত আতিকুর রহমান রনি ওরফে কোয়াটার রনিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল সদর থানাসহ বিভিন্ন থানায় খুন, অস্ত্র ও ছিনতাইসহ ৯টি মামলা রয়েছে। রনি টাঙ্গাইল শহরের দেওলা এলাকার বেলায়েত হোসেনের ছেলে।
শনিবার টাঙ্গাইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর মোশারফ হোসেনের নেতৃত্বে ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
এ ঘটনায় রোববার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিং করেন পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালে কোয়াটার রনি ও তার সহযোগীরা টাঙ্গাইলের পিচুরিয়া এলাকা থেকে শামীম ও মামুন নামের দুইজনকে অপহরণের পর খুন করে মরদেহ গুম করার ঘটনায় সদর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। সেই মামলায় রনির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়।
কোয়াটার রনির বিরুদ্ধে দুইটি খুন, ৪টি অস্ত্র মামলাসহ আরো তিনটি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এছাড়াও সে সদর থানায় দায়ের হওয়া ছিনতাই মামলার সন্ধিগ্ধ আসামী।
জেলা পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, কোয়াটার রনির বিরুদ্ধে খুন ও অস্ত্র মামলাসহ ৯টি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এরমধ্যে একটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা ছিল। একজন সংসদ সদস্য তার নামটা বলেছিলেন। সে পুলিশের খাতায় একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী। শনিবার তাকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল সদর থানায় একটি ছিনতাই মামলারও সন্ধিগ্ধ আসামী। সেই মামলাতে ৫দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে টাঙ্গাইল কোর্টে পাঠানো হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, টাঙ্গাইলে সন্ত্রাসীদের অভয়ারন্য হতে দেয়া হবে না। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত থাকবে। জেলার বাকি সকল সন্ত্রাসীদের ধরতে অভিযান চলমান থাকবে।

বিজ্ঞাপন