চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঝিনাইদহের বজরাপুরের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চলছে, নিহত দুই জঙ্গি, আহত তিন পুলিশ 

শেখ সেলিম, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
ঢাকা থেকে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট পৌঁছার পর ঝিনাইদহের মহেশপুরের বজরাপুরে জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অভিযান আবারও শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত এই অভিযানে ২ জঙ্গি নিহত ও ৩ পুলিশ কর্মকর্তা আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। অভিযান শুরুর পর কিছুক্ষণের জন্য ‘বিরতি’ দেয়া হয়েছিলো। পরে সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে বাড়িটিতে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা প্রবেশ করেন। এরপর আবারও অভিযান শুরু হয়।

সকালে বজরাপুরের এই বাড়িতে অভিযানকালে নিহত দুই জঙ্গির একজন আত্মঘাতী বোমা হামলায় এবং অপরজন গুলিতে নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। নিহতদের মধ্যে তুহিন নামের একজন রয়েছে। আহত হয়েছেন কাউন্টার টেরোরিজমের এডিসি নাজমুল ইসলাম, পুলিশের এসআই মজিবুর রহমান ও এএসআই মহসিন আলী। এদের মধ্যে নাজমুল ইসলামকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এখনও আস্তানাটি ঘিরে রাখা হয়েছে। এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে অভিযানের সময় স্থানীয়দের ভিড় না করতে মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, নব্য জেএমবির সদস্যরা ওই বাড়িটিতে আশ্রয় নিয়ে আছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চলাতে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়। এসময় পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়লে একজন জঙ্গি নিহত হয়। এরপর ঘরের ভিতরে বোমা ফাটিয়ে নিহত হয় একজন। পুলিশ বাড়ির মালিক জহিরুল ইসলাম ও তার ছেলেকে আটক করেছে।

তিনি আরও জানান, একই উপজেলার লেবুতলা গ্রামের আরো একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৮টি বোমা এবং একটি নাইন এমএম পিস্তল উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় শামীম নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়। এর মধ্য দিয়ে লেবুতলার অভিযান শেষ হয়। বজরাপুরের আস্তানায় বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট আসার পর বাড়ির ভিতরে উদ্ধার অভিযান শুরু হবে। ওই এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে বাড়িটিকে ঘিরে রাখা হয়েছে।

গত ২২ এপ্রিল একই জেলার সদর উপজেলার পোড়াহাটি গ্রামের এক জঙ্গি অাস্তানায় অপারেশন ‘সাউথ প’ অভিযান চালানো হয়েছিলো। ওই বাড়িটিতে অবশ্য কোনো জঙ্গি পাওয়া যায়নি।