চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জোড়া সিনেমা দিয়ে ‘চিত্রনায়িকা’ দীঘির অভিষেক

দীঘির সামনে যোগ হচ্ছে ‘চিত্রনায়িকা’র তকমা, একসঙ্গে মুক্তি পাচ্ছে দুই ছবি

যেখানে একটি সিনেমা মুক্তি পেতে অনেক নতুনের বেগ পেতে হয়, সেখানে অভিষেকেই জোড়া সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে দীঘির। এর মাধ্যমে শিশুশিল্পী থাকাকালীন তারকা বনে যাওয়া দীঘির নামের আগে যোগ হচ্ছে ‘চিত্রনায়িকা’ তকমা!

আগামী ১২ মার্চ দীঘি অভিনীত দুইটি সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। একটি শান্ত খানের বিপরীতে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিঁয়াভাই’, অন্যটি আসিফ ইমরোজের সঙ্গে দেলোয়ার জাহান জন্টু পরিচালিত ‘তুমি আছো তুমি নেই’।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ইতোমধ্যেই দীঘি অভিনীত সিনেমা দুটি সেন্সর ছাড়পত্র লাভ করেছে। তাই মুক্তিতে আর কোনো বাঁধা থাকছে না। সবকিছু ঠিক থাকলে জোড়া সিনেমা মুক্তির মাধ্যমে দীঘি চিত্রনায়িকা হতে যাচ্ছেন ১২ মার্চ।

নির্দিষ্ট দিনে সিনেমাটি দুটি মুক্তি পাবে বলে নিশ্চিত হয়েছেন দীঘি নিজেও। তিনি তার ফেসবুকে উচ্ছ্বাস নিয়ে দুটির সিনেমার পোস্টার আলাদাভাবে শেয়ার করে সকলের দোয়া কামনা করেছেন। একসঙ্গে জোড়া ছবি মুক্তির ব্যাপারটি নিয়ে দীঘি নিজেকে লাকি মনে করছেন।

বিজ্ঞাপন

চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে আলাপে তিনি বলেন, এই অনুভূতি প্রকাশের মতো না। তার ভাষায়, শুরুতে একের পর এক ভালো ভালো সিনেমা করতে পারা, বঙ্গবন্ধুর মতো ব্যক্তিত্বের জীবনী নির্ভর সিনেমায় কাজের সুযোগ পাওয়া- সবকিছু মিলিয়ে জার্নিটা ভালো ছিল। সিনেমা মুক্তির সময়ে শুরুতে দুই সিনেমা মুক্তি পেলে আমার জন্য অনেক বড় কিছু হবে।

দীঘি বলেন, সচরাচর অভিষেকে একসঙ্গে দুই সিনেমা খুব কম নায়িকার মুক্তি পায়। অনেক বড় নায়কদেরও তেমন হয় না। আমার যদি হয় এজন্য আমি নিজেকে যথেষ্ট লাকি মনে করবো। আগামীর পথচলা যেন আরও মসৃণ হয় সেই দায়িত্ব নিয়ে কাজ করবো।

এদিকে, শুটিংয়ে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক ‘বঙ্গবন্ধু’-তে দীঘি পেয়েছেন কাজের সুযোগ। তিনি অভিনয় করছেন বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন্নেসা রেনুর চরিত্রে। মুম্বাই থেকে প্রথম লটের শুটিংও শেষ করেছেন তিনি। মার্চের শেষে যোগ দেবেন বাকি অংশের শুটিংয়ে।

দীঘি বলেন, বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের জন্য বাঘা বাঘা শিল্পীরাও অডিশন দিয়েছেন। কিন্তু সুযোগ পেয়েছেন কয়েকজন। আমি যখন অডিশন দেই তখনও সিনেমায় কামব্যাক করিনি। আমার যোগ্যতা বিচার করেই কর্তৃপক্ষ নির্বাচন করেছেন। এটা অনেক বড় প্রাপ্তি মনে করি।

যোগ করে তিনি আরও বলেন, এ সিনেমা দিয়ে তারকা হতে পারবো না, তবে ইতিহাসের পাতায় আমার নাম থাকবে। জানিনা আমি অভিনয় দিয়ে কতটুকু সমৃদ্ধি করতে পারবো, তবে আমার নামটা ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে। তাই আমার আর কোনো আক্ষেপ থাকবে না।

বিজ্ঞাপন