চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট এমারসন নাঙ্গাগওয়া

রবার্ট মুগাবের পদত্যাগের পর জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শুক্রবার শপথ গ্রহণ করবেন সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নাঙ্গাগওয়া। দেশটির রাষ্ট্রীয় প্রচার মাধ্যমে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

দুই সপ্তাহ আগে ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নাঙ্গাগওয়াকে বরখাস্ত করেছিলেন মুগাবে। বরখাস্ত হওয়ার পর তিনি দেশ ছেড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা চলে যান। আর এর পরেই শুরু হয় বিশৃঙ্খলা।

বিজ্ঞাপন

সেনাবাহিনী হঠাৎ ক্ষমতা দখলে নিয়ে মুগাবেকে গৃহবন্দি করে। তখন সেনাবাহিনীর বক্তব্য থেকেই বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যায় যে, পরবর্তী প্রেসিডেন্ট পদের দৌড়ে এগিয়ে থাকবেন এমারসন নাঙ্গাগওয়া। বুধবার তিনি দেশে ফিরবেন এমন তথ্যও জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পার্লামেন্টে অভিশংসন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার আগে মঙ্গলবার স্পিকারের কাছে হঠাৎ পদত্যাগপত্র জমা দেন ৩৭ বছর ধরে দেশটির ক্ষমতায় থাকা রবার্ট মুগাবে।

সংবিধান অনুসারে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হন প্রেসিডেন্ট পদ শূন্য হওয়ার সময় দায়িত্ব পালনরত ভাইস প্রেসিডেন্ট। সেই হিসাবে প্রেসিডেন্ট হওয়ার কথা ছিলো ফেলেকেজেলা এমফোকোর। তবে মুগাবের বিশ্বস্ত এমফোকোকে জানু-পিএফ পার্টি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে দেশটির কয়েকটি গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে।

১৯৮০’র দশকে স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের গৃহযুদ্ধে দেশটির সহস্রাধিক মানুষ নিহত হয়েছিলো, তখন দেশের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন এমারসন নাঙ্গাগওয়া। যদিও তিনি হত্যাকাণ্ডের দায় নিজের কাঁধে নেননি।

নতুন এই রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে দেশে স্বাধীন ও স্বচ্ছ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে বিবিসির কাছে আশা প্রকাশ করেছেন দেশটির বিরোধী দলীয় নেতা মর্গান এসভ্যাঙ্গারাই। প্রখ্যাত বিরোধী রাজনৈতিক নেতা ডেভিড কোলটার্ট এক টুইটে লেখেন: আমরা স্বৈরাচারকে গদিচ্যুত করেছি ঠিকই, স্বৈরতন্ত্র এখনও বাকি আছে।