চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জার্মানিতে নিষিদ্ধ লিভারপুল

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম লেগ খেলতে জার্মানিতে যাওয়ার কথা ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলের। ১৬ ফেব্রুয়ারি আরবি লিপজিগের বিপক্ষে ম্যাচ আছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দলের। তবে সেই ম্যাচ হওয়ার আগেই তাতে দাঁড়ি বসিয়ে দিচ্ছে জার্মান ফেডারেল পুলিশ। ব্রিটেনজুড়ে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ইংলিশ ক্লাবটির জার্মানিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির প্রশাসন।

ব্রিটেনজুড়ে নতুন এক শক্তিশালী কোভিড-১৯ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে ব্রিটেনবাসির ভ্রমণের উপর। দেশগুলোর তালিকায় আছে জার্মানিও। চলতি সপ্তাহের শুরুতে জার্মানির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে ‘পেশাদার অ্যাথলেটদেরকেও জার্মানিতে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।’ বৃহস্পতিবার মন্ত্রণালয় থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানানো হয়েছে, বিশেষ অনুমতি দিয়েও মাঠে গড়াতে দেওয়া হবে না চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ব্রিটেনগামী সমস্ত বিমান জার্মানিতে প্রবেশে আছে নিষেধাজ্ঞা, অথচ ১৬ ফেব্রুয়ারি লিভারপুলের বিপক্ষে ম্যাচ; কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়ে গেছে লিপজিগ। কারণ ম্যাচ আয়োজনে ব্যর্থ হলে উয়েফার নিয়ম অনুযায়ী ৩-০ গোলে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে লিভারপুলকে। হার এড়াতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠিও দিয়েছিলো লিপজিগ, জবাব এসেছে কেবল কূটনৈতিক, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্যতীত অন্য যে কাউকেই প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না জার্মানিতে।

বিজ্ঞাপন

হার এড়াতে একটাই সমাধান খোলা আছে লিপজিগের সামনে, তা হলো সূচি পাল্টাপাল্টি করে নেওয়া। অর্থাৎ, ১৬ ফেব্রুয়ারি লিভারপুলকে আতিথ্য দেওয়ার বদলে নিজেরাই অলরেডদের মাঠে খেলতে যেতে পারে জার্মান ক্লাবটি। ১০ মার্চ নিজেদের মাঠে আয়োজন করবে দ্বিতীয় লেগটি। মাঝখানের সময়ের মধ্যে হয়তো উঠে যেতে পারে স্বাস্থ্যবিধি, তখন এই ম্যাচ আয়োজনে আর সমস্যা হবে না লিপজিগের।

তবে জার্মান পত্রিকা বিল্ড বলছে লিপজিগের প্রস্তাবে লিভারপুলের রাজী সম্ভাবনা বেশ কম। প্রথম লেগ নিজেদের মাঠে আয়োজনের সুযোগ কিছুতেই ছাড়তে চাইবে না ক্লাবটি। সূচি পাল্টানোর বদলে নিরপেক্ষ ভেন্যু হিসেবে রাশিয়া অথবা হাঙ্গেরির যেকোনো মাঠে প্রথম লেগটি আয়োজনের প্রস্তাব দেওয়া হতে পারে লিভারপুলের কাছ থেকে। আবার সূচি পাল্টাতে অনুমতি লাগবে উয়েফারও।

তবে কেবল লিভারপুল-লিপজিগ নিয়েই শঙ্কা আছে তা নয়, বরুসিয়া মনশেনগ্ল্যাডবাখ-ম্যানচেস্টার সিটি ম্যাচ ঘিরেও কিন্তু আছে প্রশ্ন। ২৪ ফেব্রুয়ারি এই দুই দলের প্রথম লেগ। তার আগেই পরিস্থিতি না পাল্টালে একই পরিণতি হতে পারে এই ম্যাচেও।

বিজ্ঞাপন