চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জাপানে করোনার চেয়ে আত্মহত্যায় মৃত্যু বেশি  

মহামারী করোনাভাইরাসের ফলে মানসিক অসুস্থতা বৃদ্ধির যে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞরা প্রকাশ করেছিলেন, জাপানের ক্ষেত্রে সেটাই সত্য হলো। যদিও দেশটি এমনিতেই আত্মহত্যা প্রবণ।  এর মধ্যে করোনার হানাসহ সব মিলিয়ে বেড়ে গেছে আত্মহত্যার সংখ্যা।

সিএনএন বলছে, সামাজিক বিচ্ছিন্নতা জাপানে পূর্বের তুলনায় আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়িয়ে দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

জাপান সরকারের পরিসংখ্যান ‍বলছে, ২০২০ সালের ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত দেশটিতে করোনাভাইরাসে যে পরিমাণ মানুষ মারা গেছেন, তার চেয়ে বেশি আত্মহত্যা করেছেন শুধু অক্টোবর মাসেই। এর মধ্যে আবার নারীদের সংখ্যা বেশি।

দেশটির ন্যাশনাল পুলিশ এজেন্সির তথ্য অনুযায়ী, অক্টোবরে জাপানে আত্মহত্যা করেছেন ২ হাজার ১৫৩ জন।  অপরপক্ষে ২০২০ সালে নভেম্বর পর্যন্ত দেশটিতে করোনা মহামারীতে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৮৭ জনের।

বিজ্ঞাপন

জাপানের ওয়াসেদা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ও মনোরোগ বিশেষজ্ঞ মিচিকো উয়েদা বলেন, করোনায় আমাদের এখানে লকডাউনও ছিলো না। অন্য দেশের তুলনায় করোনার প্রভাবও ছিলো অনেক কম। তারপরও আত্মহত্যার সংখ্যা বাড়ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, দীর্ঘ দিন ধরেই বিশ্বে সবচেয়ে বেশি মানুষ আত্মহত্যার রেকর্ড জাপানের।  ২০১৬ সালে জাপানে আত্মহত্যায় মৃত্যুর হার ছিলো প্রতি ১ লাখে ১৮ দশমিক ৫ শতাংশ।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জাপানে আত্মহত্যার হার বেশি হওয়ার কারণগুলো অত্যন্ত জটিল। তবে দীর্ঘ সময় কাজ করা, পড়াশোনার চাপ, সামাজিক বিচ্ছিন্নতা এবং মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে অজ্ঞতার কারণে আত্মহত্যার ঘটনা বেশি ঘটেছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

নারীরা বেশি আত্মহত্যা করছেন জানিয়ে আলাদা করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ। বলা হয়, নারীদের আত্মহত্যার প্রবণতা উল্লেখযোগ্যভাবে বেশি। আগের থেকে অনেক বেশি সংখ্যায় নারী আত্মহত্যা করছেন।