চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাড়িতেই রেস্টুরেন্টের মতো পিৎজা তৈরির সিক্রেট!

যারা রাঁধেন, তারা প্রায়ই রেস্টুরেন্টের খাবারের সঙ্গে বাড়িতে তৈরি খাবারের তুলনা করেন। বাসার খাবার কেন রেস্টুরেন্টের মতো পারফেক্ট হয় না তা নিয়ে মনে মনে আফসোস করেন অনেকেই। আর খাবারটি যদি হয় পিৎজা অথবা পাস্তা তাহলে তো আফসোস যেন আরও বেড়ে যায়।

একজন নৃতত্ত্ববিদ এবং পদার্থবিদ এর করা একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় জানা গেছে রেস্টুরেন্টের মতো ‘পারফেক্ট’ পিৎজা তৈরির ‘সিক্রেট।’ রোমের নর্দান ইলিনইস ইউনিভার্সিটির অ্যান্দ্রে ভারলামভ এবং অ্যান্দ্রেয়াস গ্লাতজ পিৎজা বেকিং এর এই গোপন রহস্য জানিয়েছেন গবেষণায়।

বিজ্ঞাপন

অধিকাংশ মানুষ মনে করেন, পারফেক্ট পিৎজা তৈরির জন্য প্রচুর মোজারেলা চিজ, সঠিক পরিমাণে পানি এবং পিজা মশলা দিতে হয়। কিন্তু মূল বিষয় সেটা নয়। ‘পারফেক্ট’ পিৎজা তৈরির জন্য মূল বিষয় হলো ‘থার্মোডাইনামিক্স।’ গবেষণায় বলা হয়েছে, রেস্টুরেন্ট/ক্যাফে গুলো ট্র্যাডিশনাল উড-ফায়ার ওভেনগুলোকে ৬২৫ ডিগ্রী ফারেনহাইট (৩২৯ ডিগ্রী সেলসিয়াস) এ গরম করে। তাপটা সবদিকে সমানভাবে ছড়ায় বলে সঠিকভাবে পিৎজা বেক হয়।

বিজ্ঞাপন

গবেষকদের মতে ঘরের ইলেকট্রিক ওভেনেও একই রকম পিৎজা তৈরি সম্ভব। শুধু প্রয়োজন হলো রান্নার সূত্র বদলানো। সবকিছু একবারে ওভেনে না দিয়ে প্রথমে পিৎজার বেজটাকে ৪৫০ ডিগ্রী ফারেনহাইটে (২৩০ ডিগ্রী সেলসিয়াস) ৪-৫ মিনিট বেক করে নিতে হবে। এরপর টপিং দিয়ে আবার বেক করতে হবে।

মনে প্রশ্ন জাগতে পারে কেন আগেই বেক করে নিতে বলা হলো। উত্তর হলো, পিৎজায় যেই সবজিগুলো দেয়া হয় সেগুলো থেকে প্রচুর পানি বের হয়। পিৎজার বেজটা ঠিক মতো বেক হয় না। আগেই কিছুক্ষণ বেক করে নিলে এই সমস্যাটি হয়না। এছাড়াও সবজি থেকে পানি বের হওয়ার ফলে ওভেনের তাপ কমে যায়। তাই বেশি সবজি দিলে পিৎজা হতেও বেশি সময় নেয়।

‘সিক্রেট’ জেনে গেলেন। এবার সব উপকরণ সংগ্রহ করে পিৎজা তৈরির কাজ শুরু করে দিন।