চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জহির রায়হান অন্তর্ধানের ৪৮ বছর

৩০ জানুয়ারি প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা, গল্পকার ও ঔপন্যাসিক জহির রায়হানের অন্তর্ধান দিবস। ৪৮ বছর আগে ১৯৭২ সালের এই দিনের পর তাঁকে আর পাওয়া যায় নি।

১৯৩৫ সালে জন্ম নেয়া জহির রায়হানের পড়াশোনার বিষয় ছিল বাংলা সাহিত্য। ১৯৫০ সালে খুব কম বয়সেই শুরু করেন তাঁর সাহিত্যিক ও সাংবাদিক জীবন। বিভিন্ন পত্রিকায় সাংবাদিক হিসেবে কাজ করার পর যোগ দেন সম্পাদক হিসেবে ‘প্রবাহ’ পত্রিকায়।

বিজ্ঞাপন

চলচ্চিত্রাঙ্গনে তাঁর প্রবেশ ‘জাগো হুয়া সাবেরা’ চলচ্চিত্রে সহকারি পরিচালক হিসেবে। ১৯৬৮ সালে পরিচালনা করেন পাকিস্তানে প্রথম রঙিন চলচ্চিত্র ‘সঙ্গম’।

ভাষা আন্দোলনের সাথেও জহির রায়হান ছিলেন সরাসরি সম্পৃক্ত। সেই আন্দোলনের প্রভাবেই তিনি নির্মাণ করেছিলেন কালজয়ী চলচ্চিত্র ‘জীবন থেকে নেয়া’।

মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে তিনি কলকাতায় অবস্থান করে নির্মাণ করেন বিখ্যাত প্রামাণ্যচিত্র ‘স্টপ জেনোসাইড’, ‘বার্থ অব নেশন’, ‘লিবারেশন ফাইটার্স’ এবং ‘ইনোসেন্ট জিনিয়াস’।

মুক্তিযুদ্ধ শেষে ঢাকায় ফিরে এসে নিখোঁজ বড় ভাই শহীদুল্লাহ কায়সারের খোঁজে বের হন এবং ৩০ জানুয়ারির পর আর তাঁকে পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে প্রমাণ পাওয়া গেছে মিরপুরের বধ্যভূমি এলাকায় বিহারী ও ছদ্মবেশী পাকিস্তানিদের গুলিতে তিনি নিহত হয়েছিলেন।

তার উল্লেখযোগ্য উপন্যাস হচ্ছে- শেষ বিকেলের মেয়ে, হাজার বছর ধরে, আরেক ফাল্গুন, বরফ গলা নদী, আর কত দিন, কয়েকটি মৃত্যু, একুশে ফেব্রুয়ারি, তৃষ্ণা ইত্যাদি।

জহির রায়হানের অন্তর্ধান দিবসে তাঁকে স্মরণ:
বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার ইন্টারন্যাশনাল ডিজিটাল কালচারাল আর্কাইভ কক্ষে জহির রায়হান নির্মিত ‘কখনও আসেনি’ চলচ্চিত্রটি প্রদর্শিত হবে। সন্ধ্যা ৬টায় অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা সভা।

জহির রায়হানের চিন্তা ও কর্মের বিশ্লেষণমূলক আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন বিশিষ্ট চলচ্চিত্রকার সৈয়দ সালাহউদ্দিন জাকী, চলচ্চিত্র গবেষক ও লেখক অনুপম হায়াৎ, চলচ্চিত্র সমালোচক মাহমুদা চৌধুরী, জহির রায়হানের জেষ্ঠ্য পুত্র নির্মাতা বিপুল রায়হান এবং ম্যুভিয়ানা ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি চলচ্চিত্র নির্মাতা ও লেখক বেলায়াত হোসেন মামুন।