চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হ্যারিসনের জন্মদিন আজ

বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের পেছনে যেসব অবাঙালি মহৎ মানুষের সাহায্য-সহযোগিতা রয়েছে, মার্কিন গায়ক ও গিটারিস্ট জর্জ হ্যারিসন ছিলেন তাদের অন্যতম। তার নামটি বাংলাদেশিদের কাছে শ্রদ্ধা, সম্মানে অনন্য উচ্চতায় আছে। এর পেছনের কারণ ‘দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ।’ আজ এই শিল্পীর শুভ জন্মদিন। জর্জ হ্যারিসন ১৯৪৩ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাজ্যে জন্মগ্রহণ করেন।

১৯৭১ সালের ১ আগস্ট নিউইয়র্ক সিটির ম্যাডিসন স্কোয়ার গার্ডেনে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সমর্থনে ও অর্থ সংগ্রহের লক্ষ্যে আয়োজন করা হয়েছিল ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’-এর। ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’-এর আয়োজক ছিলেন ভারতীয় সেতারবাদক ওস্তাদ রবিশঙ্কর ও তার বন্ধু বিটলস খ্যাত জর্জ হ্যারিসন। এতে অংশ নিয়েছিলেন বব ডিলান, এরিক ক্ল্যাপটন, জর্জ হ্যারিসন, বিলি প্রিস্টন, লিয়ন রাসেল, ব্যাড ফিঙ্গার এবং রিঙ্গো রকস্টারের মতো তারকারা। এই কনসার্ট সারা বিশ্বকে জানিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশের কথা। এই অনুষ্ঠানেই জর্জ হ্যারিসন পরিবেশন করেছিলেন বাংলাদেশকে নিয়ে লেখা তার ঐতিহাসিক গান ‘রিলিজ দ্য পিপল অব বাংলাদেশ।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

কনসার্ট ও অন্য অনুষঙ্গ থেকে প্রাপ্ত অর্থ সাহায্যের পরিমাণ ছিল প্রায় দুই লাখ ৪৩ হাজার ৪১৮ মার্কিন ডলার। এ সহায়তা জাতিসংঘের শিশু সুরক্ষা বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফের মাধ্যমে ভারতে আশ্রয় নেয়া বাংলাদেশী শরণার্থীদের সাহায্যার্থে ব্যয় হয়।

এক নজরে দেখে নিন জর্জ হ্যারিসনের দশটি উক্তি:

‘সমালোচনা হলো শয়তানের রেডিও।’

‘সৃষ্টিকর্তা আমাদের ভেতরেই বাস করেন, আমাদের হৃদয়ে।’

‘আমাকে ভালবাসুন, আমাকে পৃথিবীতে শান্তিতে থাকতে দিন, আলো দিন, জীবন দিন।’

বিজ্ঞাপন

‘আমি নিজেকে খুঁজে পাই যখন আমার হাতে গিটার থাকে।’

‘একে অপরকে ভালোবাসুন।’

‘আমি তারকা হতে চাইনি। আমি শুধু গিটার বাজাতে চেয়েছি।’

‘কখন আওয়াজ তুলতে হবে আর কখন চুপ থাকতে হবে তা সবাই জানে। এটা যার যার ব্যাপার।’

‘জীবন হলো পদ্ম পাতায় বৃষ্টির ফোঁটার মতো।’

‘প্রতিটি ভুল থেকে আমরা নিশ্চিত ভাবেই অনেক কিছু শিখি’

‘মিথ্যা বলা সহজ, সত্য বলাই কঠিন।’