চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জর্জ ফ্লয়েড নিঃশ্বাস নিতে না পেরে তার মাকে ডেকেছিল

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ একটি শহর মিনিয়াপোলিস। ২৫ মে পুলিশ হেফাজতে ৪৬ বছর বয়সী জর্জ ফ্লয়েড নামে একজন আফ্রিকান-আমেরিকান বংশোদ্ভূত কৃষ্ণাঙ্গের মৃত্যু হয়। সে হত্যার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৪০টি শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনায় চার পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে । হত্যার মূল ডেরেক শভিনের বিরুদ্ধে ‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ মার্ডারের অভিযোগ আনা হয়েছে। এদিকে বিক্ষোভকারীদের দমাতে কারফিউ জারি করা হয়। কারফিউ অমান্য করে ২৯ মে হোয়াইট হাউজের বাইরে বিক্ষোভকারী বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে। হোয়াইট হাউজের নিরাপত্তা বেষ্টনি ভেঙে শত শত বিক্ষুব্ধ জনতা ঢুকে ভাঙচুর চালায় ও ইট-পাটকেল ছুঁড়তে থাকে। পরিস্থিতি ক্রমাগত উত্তপ্ত হতে থাকায় সিক্রেট সার্ভিসের কর্মকর্তারা ট্রাম্পকে হোয়াইট হাউজের পূর্ব দিকে মাটির নিচে বাঙ্কারে লুকিয়ে রাখেন। বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করার জন্য পুরো ওয়াশিংটন ডিসিতে প্রায় ১,৬০০ সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। অনেক শহরে বিক্ষোভকারীরা কারফিউয়ের সুযোগে লুটপাটও চালিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুন: