চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ছুটিতে বিদেশ ভ্রমণ বাড়ছে

দীর্ঘ ছুটি। প্রতি বছরের মতো এবারও পরিবার-পরিজন নিয়ে নিজেদের মতো করে সময় কাটানোর পরিকল্পনা করেছেন ভ্রমণ পিপাসুরা। দেশে ছাড়াও বিদেশে যাচ্ছেন কেউ কেউ। প্রতি বছরই বাড়ছে এই সংখ্যা।

পর্যটন-ভ্রমণ পরিচালনাকারী সংস্থাগুলো বলছে ঈদের আনন্দে বৈচিত্র্য আনতে অনেকেই দেশের বাইরে ভ্রমণকে গুরুত্ব দিচ্ছেন। এর সাথে যোগ হয়েছে মানুষের আর্থিক সক্ষমতা বৃদ্ধি, দেশের চাইতে বিদেশে পর্যটনের সুযোগ সুবিধা বেশি থাকা এবং কম খরচে বিদেশের আকর্ষণীয় জায়গায় ভ্রমণের সুযোগ।

বিজ্ঞাপন

আর দেশে ভ্রমণ করলেও তা সিলেট, সুন্দরবন, কুয়াকাটা, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙামাটি, খাগড়াছড়িতেই সীমাবদ্ধ।

কেন দেশের চাইতে বিদেশ ভ্রমণে মানুষের আগ্রহ বাড়ছে, এ প্রসঙ্গে বেসরকারি ট্যুর অপারেটর এর সংগঠন টোয়াবের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাফি রাফিউজ্জামান বলেন: সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মানুষ সহজে নতুন নতুন জায়গা সম্পর্কে জানতে পারছে। একই খরচে আশপাশের দেশে ভ্রমণ করতে পারা, দেশের পর্যটন জায়গার অবকাঠামো উন্নত না হওয়ার সাথে আধুনিক সুযোগ সুবিধা না থাকা।

টোয়াবের পরিচালক তৌফিক রহমান বলেন: ইদানিং বেসরকারি বিভিন্ন এয়ারলাইন্স বিমান ভাড়ার সঙ্গে প্যাকেজ ঘোষণা করছে। ট্যুর অপারেটরদের চাইতে খরচ কম হওয়ায় অনেকেই আগ্রহী হয়ে উঠছেন বিদেশ ভ্রমণে। অনলাইনের মাধ্যমে সহজে হোটেল বুকিং করা, বিমানের টিকেট কাটা এবং ব্যাংক কিস্তির মাধ্যমে ভ্রমণের খরচ পরিশোধ করার সুযোগও বিদেশ যাওয়া বাড়ছে দিন দিন।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও জানান, দেশের হোটেল রিসোর্টের অত্যধিক ভাড়া, ভ্রমণ পথে ঝক্কি ঝামেলা থাকার বিষয়টি চিন্তা করেও অনেকে বাইরে চলে যান।

তবে বেসরকারি ট্যুর অপারেটর মাহবুব হোসেন সুমন বলেন: দেশের পর্যটন স্থানগুলো ঘুরে দেখার পর নতুন জায়গা দেখার আগ্রহ বাড়ছে। মানুষের অর্থনৈতিক সামর্থ্যও বৃদ্ধি পাচ্ছে। এমন দুটি কারণে বিদেশে বেড়ানোর প্রবণতা বাড়ছে বলে মনে করেন তিনি।

টোয়াব জানায়, সহজে ভিসা পাওয়ার সুবিধার কারণে প্রথমেই ভ্রমণে বাংলাদেশিরা নেপাল, ভুটান, ভারত, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুরকে প্রাধান্য দিচ্ছেন। সাধারণত মধ্যবিত্ত, উচ্চমধ্যবিত্ত পরিবারগুলো বেশি যাচ্ছে। আর উচ্চবিত্তদের আগ্রহ অবশ্য ইউরোপ আমেরিকার দেশগুলোর প্রতি। ঈদ উপলক্ষে ঈদের আগের দিন থেকে পরের এক সপ্তাহ কোন বিমানেই টিকেট মিলবে না। এই সময়ে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েও ভ্রমণে যাচ্ছেন অনেকেই।

কেউ কেউ বলছেন বিদেশ ভ্রমণে যাচ্ছে সাড়ে ৬ লাখ মানুষ। তবে কত সংখ্যক মানুষ বিদেশ ভ্রমণে যাচ্ছেন তার সঠিক কোন পরিসংখ্যান নেই বলে জানিয়েছে ভ্রমণের সংগঠনগুলো।

তারা বলছে, প্রতিবছর ঈদ উপলক্ষে পর্যটন-ভ্রমণ বাণিজ্যের পরিসর বৃদ্ধি পাচ্ছে। পর্যটন করপোরেশন ও ট্যুরিজম বোর্ড এ খাতের উন্নয়নে যথাযথ পদক্ষেপ নিলে ভ্রমণ পিপাসুরা বিদেশের চাইতে দেশেই ভ্রমণে বেশি উৎসাহী হবেন।