চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ছবি ফ্লপ করলেও কখনো থেমে থাকিনি, কাজ করে গিয়েছি: সালমান

পুরো ক্যারিয়ারে এতো দীর্ঘ অবসর আর কখনোই পাননি সালমান…

‘পনের বছর বয়স থেকে কাজ শুরু করেছি। প্রথম দিকে ছবি ফ্লপ করলেও থেমে থাকিনি। কাজ করে গিয়েছি। এখনও করছি।’ কথাগুলো বলছিলেন বলিউড তারকা সালমান।

মডেল ওয়ালুসচা ডি সুজার নেয়া এক সাক্ষাতকারে সালমান কথা বলেছেন সাম্প্রতিক নানা বিষয়ে। সালমানের প্যানভেল ফার্মহাউজে ওয়ালুসচাও থাকছেন। পরিবারের লোকজন ছাড়াও সালমানের ফার্মহাউজে আরো রয়েছেন অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ এবং ইউলিয়া ভানতুর (সালমানের কথিত প্রেমিকা)।

বিজ্ঞাপন

সালমান জানান, লকডাউনের কারণে ক্যারিয়ারে এই প্রথম এত বিরতি পেয়েছেন তিনি। তবে কাজ থামিয়ে রাখেননি। সময়টাকে কাজে লাগাতে ইউটিউবে চ্যানেল খুলেছেন। মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করা হচ্ছে সেই চ্যানেল থেকে।

সাক্ষাতকারে সালমান বলেন, ‘আমি পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমার মা সালমা খান, বোন অর্পিতা খান ও তার সন্তানরা মুম্বাইতে আছে। লকডাউন তুলে নেয়া হলে বাড়ি ফিরবো।’

সালমান বলেন, লকডাউনে নিজেকে ব্যস্ত রাখতে সম্প্রতি তিনি মিউজিক ভিডিও ‘পেয়ার করোনা’ প্রকাশ করেছেন। প্রকাশের অপেক্ষায় আছে ‘তেরে বিনা’।

ফার্ম হাউজেই শুটিং করা হয়েছে গান দুটির। এখন পর্যন্ত সালমানের সবচেয়ে কম খরচের প্রোডাকশন এগুলো। তিনি জানান, লকডাউনে শুটিং করতে গিয়ে অনেক কিছু শিখেছেন তিনি। কোনো মেকআপ আর্টিস্ট এবং হেয়ার স্টাইলিস্টের প্রয়োজন হয়নি শুটিং করতে। তবে গান এডিট করতে বেশ কষ্ট হয়েছে। ইন্টারনেটের স্পিড কম থাকায় বেশ সমস্যায় পড়তে হয়েছে।

সালমান খান জানান, অন্যদের মতো তিনিও লকডাউনে মাঝে মাঝে ধৈর্য হারিয়ে ফেলছেন। এরপর নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করে ফেলছেন এই বলিউড তারকা।