চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ছক্কা-বৃষ্টির ম্যাচে গাপটিলদের রোমাঞ্চ ছড়ানো জয়

ম্যাচে মোট ৩১বার বল সীমানার বাহিরে উড়িয়ে ফেলেছেন দুদলের ব্যাটসম্যানরা। এমন ছক্কা-বৃষ্টির দিনে বড় সংগ্রহ আর রোমাঞ্চ ছাড়ানোর বিকল্প নেই! মাঠে হলও সেটাই। শেষ হাসি অবশ্য নিউজিল্যান্ডের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টুয়েন্টিতে ৪ রানের জয় তুলেছে কিউইরা।

ডানেডিনে বৃহস্পতিবার টস হেরে ব্যাটিংয়ে আসা নিউজিল্যান্ড নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেটে তোলে ২১৯ রান। জবাব দিতে নেমে ৮ উইকেটে ২১৫ রান পর্যন্ত যায় অস্ট্রেলিয়া।

বিজ্ঞাপন

দারুণ জয়টি দিয়ে পাঁচ ম্যাচ টি-টুয়েন্টির সিরিজে ২-০তে এগিয়ে গেল স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড।

৫০ বলে ৯৭ রানের ইনিংস খেলা মার্টিন গাপটিল আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ডের মালিক বনে গেছেন এদিন। কিউই ওপেনার ৬ চার ও ৮ ছক্কায় ইনিংস সাজিয়েছেন।

তা দিয়ে টপকে গেছেন শীর্ষে থাকা রোহিত শর্মাকে। ৯২ ইনিংসে ১৩২ ছয় নিয়ে আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টিতে শীর্ষে এখন গাপটিল। ১০০ ইনিংসে ১২৭ ছয়ে দুইয়ে ভারতের রোহিত।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেটে ছয়ের শতক আছে আরও তিনটি। ৯৪ ইনিংসে ১১৩ ছয় ইংল্যান্ডে ইয়ন মরগানের, ৬২ ইনিংসে ১০৭ ছয় কিউই কলিন মুনরোর এবং ৫৪ ইনিংসে ১০৫ ছয় টি-টুয়েন্টির ফেরিওয়ালা ক্যারিবীয় ব্যাটিংদানব ক্রিস গেইলের।

ইউনিভার্সিটি ওভালে টিম সেইফার্টকে (৩) দ্রুত হারিয়ে শুরু করে কিউইরা। দ্বিতীয় উইকেটে কেন উইলিয়ামসনকে নিয়ে গাপটিল অবশ্য সেটি সামাল দেন। জুটিতে গড়েন দেশিয় রেকর্ড ১৩১ রানের প্রযোজনা, সেটিও মাত্র ৬৯ বলে।

বিজ্ঞাপন

২৭ বলে ফিফটি ছুঁয়ে গাপটিল সেঞ্চুরির সুবাস ছড়িয়েও তিনঅঙ্কে যেতে পারেননি। দলনেতা উইলিয়ামসন ফেরেন ২ চার ৩ ছয়ে ৩৫ বলে ৫৩ রানে। জেমস নিশাম এক চার ও ৬ ছক্কায় অপরাজিত থাকেন ১৬ বলে ৪৬ রানের ঝড় তুলে।

জবাব দিতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক থাকে অজিরা। ১৩ ওভারে ১১৩ রান তোলে, শেষে ৭ ওভারে ১০৭ রানের সমীকরণ আর মেলাতে পারেনি।

ম্যাথু ওয়েড ১৫ বলে ২৪, অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ১৪ বলে ১২, জস ফিলিপস ৩২ বলে ৪৫ করে অস্ট্রেলিয়াকে শুরুটা দিয়ে যান। এরপর ম্যাক্সওয়েল ৩, অ্যাস্টন অ্যাগার ও মিচেল মার্শ রানের খাতা খোলার আগেই ফিরলে খানিক ধাক্কা।

সেখান থেকে প্রতিরোধ মার্কাস স্টয়নিস ও ড্যানিয়েল সামসের। সপ্তম উইকেটে দুজনে ৩৭ বলে ৯২ রান যোগ করেন। সপ্তম উইকেটে যা টি-টুয়েন্টির বিশ্বরেকর্ড।

শেষ ওভারে নিশামের থেকে ১৫ রান ছিনিয়ে নিলেই জয় দেখত অজিরা। সেটি হয়নি। ১৮তম ওভারে ট্রেন্ট বোল্ট মাত্র ৬ রান দিয়ে যে সম্ভাবনা জাগান, তাতে পূর্ণতা দিয়ে শেষ করেন নিশাম। ১০ রান দেন, সঙ্গে নেন ২ উইকেট।

স্টয়নিস ৩৭ বলে ৭২ তুলে ফেরেন অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে, দলের ইনিংস শেষ হওয়ার এক বল আগে। ৭ চার ও ৫ ছক্কায় সাজানো তাণ্ডব তার। সামস ফেরেন ওই ওভারের প্রথম বলে। ২ চার ও ৪ ছয়ে ১৫ বলে ৪১ তুলে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড ৩২টি। ঘটেছে দুবার। তার থেকে এক ছক্কা কম দেখেছে ডানেডিনের এই ম্যাচ।

এমন রানবন্যার মাঝেও ৪ ওভারে কেবল ৩১ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন ৫০তম টি-টুয়েন্টি খেলতে নামা মিচেল স্যান্টনার। যার তিন উইকেট আবার নিয়েছেন এক ওভারেই।