চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চুরির অপবাদে এক শিশু ও তার বাবাকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

এস এম মজিবুর রহমান: শরীয়তপুরে চুরির অপবাদে ৫ম শ্রেণির এক শিশু শিক্ষার্থী ও তার বাবাকে গাছের সাথে বেঁধে  নির্যাতনের অভিযোগে ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে পালং মডেল থানা পুলিশ খবর পেয়ে নির্যাতনের শিকার শিশু শামীমের মাকে দিয়ে মামলা দায়ের করে রাতেই অভিযুক্ত তিন আসামীকে গ্রেপ্তার করে। বাকিদেরও আটকের জোর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর চন্দ্রপুর গ্রামের ৫ম শ্রেনীর ছাত্র শামীমকে স্থানীয় কৃষক হালিম বেপারী ৯ মে সকল ৯টার দিকে রাস্তা থেকে ডেকে নিয়ে ৭ দিন পূর্বের চুরির অপবাদ দিয়ে নিজ বাড়ির কাঁঠাল গাছের সাথে প্রথমে গামছা, দড়ি ও পরে শেকল দিয়ে বেঁধে মারধোর করে।

একই অপবাদে শামীমের বাবাকেও এক ঘন্টার ব্যবধানে ধরে এনে একই গাছের সাথে বাবা-ছেলেকে একসাথে বেঁধে নির্যাতন চালায়। দুপুরের পরে শামীমের বাবা খোকন মোল্লাকে ছেড়ে দিলেও শামীমকে পরিত্যাক্ত ঘরে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত স্বীকারোক্তির জন্য বুকের উপরে পাথর চাপা দিয়ে রেখে দেয়।

পরে স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে সন্তোষপুর ফাঁড়ি পুলিশ শামীমকে উদ্ধার করে। গুরুতর আহত অবস্থায় ১০ মে শিক্ষার্থী শামীম ও তার বাবাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি করলে পালং মডেল থানা পুলিশ খবর পেয়ে ১৪ মে বিকেলে ঘটনা তদন্তের জন্য হাসপাতালে যান। তদন্ত শেষে থানা কর্তৃপক্ষ শামীমের মাকে বাদী করে মামলা দায়ের করলে তিন জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন