চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চিরনিদ্রায় শায়িত মোহাম্মদ নাসিম

রাজধানীর বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

রোববার সকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বনানী কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে দাফন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় বনানী কবরস্থানে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় মহান মুক্তিযোদ্ধে অবদানের জন্য মোহাম্মাদ নাসিমকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

বিজ্ঞাপন

জানাজা শেষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তাদের নিজ নিজ সামরিক সচিব শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মোহাম্মাদ নাসিমকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হচ্ছে

বিজ্ঞাপন

এর আগে ধানমণ্ডির সোবহানবাগ জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৯টায় মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে পরিবারের সদস্য ছাড়াও দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও চৌদ্দ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম শ্যামলীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকাল ১১টা ১০ মিনিটে মৃত্যুবরণ করেন।

গত ১ জুন শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তির পর করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে মোহাম্মদ নাসিমের। ৪ জুন ভোরে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ব্রেন স্ট্রোক হয় তার।

বনানী কবরস্থানে পরিবারের সদস্য ছাড়াও দলীয় নেতা কর্মীরা শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এসেছেন বর্ষীয়ান এ নেতাকে

৫ জুন সকালে সিএমএইচ এ নেওয়ার কথা থাকলেও অবস্থার অবনতি হওয়ায় সম্ভব হয়নি। বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালেই তার অস্ত্রোপচার করা হয়। পরে ৯ জুন আবার করোনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসে।

১৯৪৮ সালের ২ এপ্রিল সিরাজগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। জাতীয় চার নেতার একজন ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলীর ছেলে ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম।