চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘চলচ্চিত্রে পুলিশের কার্যক্রমকে শৈল্পিকভাবে চিত্রায়িত করুন’

চলচ্চিত্রে পুলিশের কার্যক্রমকে শৈল্পিকভাবে চিত্রায়িত করার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, সংস্কৃতি একটা জাতির বা সমাজের চলার পথে দর্পণ হিসেবে কাজ করে। চলচ্চিত্র দেখে মানুষের মনে যেন পুলিশ সম্পর্কে বিরূপ কোন ধারণার সৃষ্টি না হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) ডিএমপি সদরদপ্তরে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি, প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতি, ডিরেক্টরস গিল্ড, শিল্পী সংঘ, নাট্যকার সংঘ, প্রেজেন্টারস প্লাটফর্মের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

প্রযোজক, পরিচালক ও শিল্পী গোষ্ঠী নেতাদের শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা সবসময় পুলিশের বাস্তব সম্মত কাজের চিত্র দর্শকদের কাছে সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলবেন। সমাজ পরিবর্তনে পুলিশ যে ভূমিকা রাখছে, আপনাদের তা চলচ্চিত্রে চিত্রায়ণের মাধ্যমে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

‘‘স্বাধীনতা যুদ্ধে পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ যুদ্ধ শুরু করেছিলো বাংলাদেশ পুলিশ। এ যুদ্ধে পুলিশের অনেক সদস্য দেশের জন্য মৃত্যুবরণ করেন। পুলিশের এই আত্মত্যাগের চিত্র চলচ্চিত্রে উপস্থাপন করা হয় না, যার ফলে বিষয়টি জনগণের কাছে সঠিকভাবে পৌঁছায়নি। এই বিষয়গুলো চলচ্চিত্রের মাধ্যমে জনগণের কাছে তুলে ধরুন।’’

নবাব এল এল বি’র ভাইরাল ভিডিও সম্পর্কে কমিশনার বলেন, ‘ভিডিওতে পুলিশের কার্যক্রমকে যেভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে, যা বাস্তব সম্মত নয়। উক্ত ভিডিওচিত্রে পুলিশের কার্যক্রম দেখলে থানায় পুলিশের কাছে সহায়তার জন্য যেতে নিরুৎসাহিত হবেন নারীরা।’

‘আপনারা জানেন প্রতিটি থানায় নির্যাতনের শিকার নারীদের জন্য নারী সহায়তা ডেস্ক রয়েছে। যেখানে ২৪ ঘন্টা পুলিশের নারী সদস্যরা সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। চলচ্চিত্রের মাধ্যমে সমাজকে যে সংবাদটি দিচ্ছেন তা সমাজের কাছে গ্রহণযোগ্য হতে হবে। আমাদের কাজগুলো নীতিগতভাবে বা শৈল্পিক দৃষ্টিতে উপস্থাপন করুন। হিংস্র বা অবাস্তব কোন বিষয় উপস্থাপন করা থেকে বিরত থাকুন। এ ধরনের বিষয় সমাজকে কলুষিত করে।’

মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম খোকনসহ সালাউদ্দিন লাভলু, ইরেশ জাকের, তানভীন সুইটি, তানিয়া আহমেদ, মুনিরা ইউসুফ মেমী ও অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সিটিটিসি) মো. মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (এ্যাডমিন) মীর রেজাউল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশনস্) কৃষ্ণপদ রায়, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) এ কে এম হাফিজ আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ কশিনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবুর রহমান, ডিএমপির যুগ্ম পুলিশ কমিশনারসহ বিভিন্ন পর্যায়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।