চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের প্রভাব মোকাবেলায় কতটা প্রস্তুত বাংলাদেশ?

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার প্রবল বেগে ধেয়ে আসছে আরও ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় ‘‘নিসর্গ‘। বর্তমানে মুম্বাই থেকে ৬৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ও সুরাট থেকে ৯২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে গভীর নিম্নচাপ হিসেবে অবস্থান করছে নিসর্গ। ধীরে ধীরে শক্তি বৃদ্ধি করে সাইক্লোনের রূপ নেবে এই নিম্নচাপ। যদিও এই ঘূর্ণিঝড় ভারতের দিকে এগিয়ে আসছে, তারপরেও এর প্রভাব পড়বে বাংলাদেশের উপকূলে।

ভারতের আবহাওয়া দপ্তর ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস দিয়ে বলেছে, আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে শক্তিশালী হয়ে ওঠার আশঙ্কা আছে নিসর্গের। আর ৬ ঘণ্টার মধ্যে শক্তি সঞ্চয় করে ধেয়ে যাবে উত্তর দিকে। আগামীকাল বুধবারের মধ্যে প্রবল গতিতে আছড়ে পড়তে পারে মহারাষ্ট্র উপকূলে। তারপর উত্তর মহারাষ্ট্র হয়ে পার্শ্ববর্তী দক্ষিণ গুজরাট উপকূল ধরে নিসর্গ যেতে পারে উপকূলীয় শহর দামানের দিকে। শুরুতে আরব সাগর হয়ে উত্তর দিকে বয়ে যাবে নিসর্গ। তারপর উত্তর পূর্বে বাঁক নিয়ে সেটি উত্তর মহারাষ্ট্র ও দক্ষিণ গুজরাটের সমুদ্র উপকূলের মাঝখানে হরিহরেশ্বরে আছড়ে পড়বে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

কিছুদিন আগে আম্পানের সরাসরি আঘাতে উপকূলীয় জেলা ও উত্তরবঙ্গের জেলাগুলোতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এর কয়েকদিন পরে আবার নিম্নচাপের প্রভাবে আবারও ক্ষতির মুখে পড়েছিল ওইসব এলাকা। কিছু এলাকা এখনও অরক্ষিত। যদিও সম্প্রতি উপকূলীয় এলাকার বাঁধ ও সাগর পাড়ের সুরক্ষায় বাজেট বরাদ্দসহ নানা পদক্ষেপ পরিকল্পনা করা হয়েছে। এরই মধ্যে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের শঙ্কা।

সামনের দিনগুলিতে দেশের ঘূর্ণিঝড় প্রবণ এলাকায় সুপরিকল্পিত পদক্ষেপ যেমন প্রয়োজন, তেমনি ওই এলাকার জনগণের জীবনমান উন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদি পদক্ষেপও প্রয়োজন। আমাদের আশাবাদ, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে যথাযথ মনোযোগী হবেন।