চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঘুমের মাঝে ঘটে যেতে পারে যে ঘটনাগুলো

দিনভর কাজ করে ক্লান্ত দেহটা বিছানায় এলিয়ে দিতে কার না ভাল লাগে বলুন? আর এভাবেই ধীরে ধীরে চোখ বন্ধ হয়ে এসে পড়েন শান্তির ঘুম। কিন্তু এই ঘুমের মাঝেই ঘটে যেতে পারে রহস্যময় কিছু ঘটনা। রহস্যময় এসব সমস্যার উপর নিজেদের তেমন কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই বললেই চলে। জেনে নিন ঘুমের মাঝে ঘটে যেতে পারে এমন কিছু রহস্যময় বিষয় সম্পর্কে।

স্লিপ প্যারালাইসিস বা বোবায় ধরা
হঠাৎ ঘুম থেকে উঠে মনে হলো কেউ যেন হাত পা সব চেপে ধরে রেখেছে। নড়তে পারছেন না আপনি। অবশ্যই কোনো অশুভ শক্তি আঁকড়ে রেখেছে আপনাকে। প্রচণ্ড ভয়ে ঘুম ভেঙ্গে যাওয়ার পরেও হাত-পা নাড়াতে পারছেন না। এই পরিস্থিতিকে অনেকেই বোবায় ধরা বলে থাকেন। সাধারণত চিৎ হয়ে শুয়ে ঘুমালে স্লিপ প্যারালাইসিস বেশি হয়। এসময়ে শরীর অসাড় হয়ে যায় কিন্তু মস্তিষ্ক সজাগ থাকে। আর একারণেই ধরণের অনুভূতি হয়।

হিপন্যাগজিক হ্যালুসিনেশন
আধো ঘুম আধো জাগ্রত অবস্থায় মানুষ অনেক সময় অদ্ভুত ও ভূতুড়ে দৃশ্য বা অবয়ব দেখতে পায় এবং সেটাকে বাস্তব মনে হয়। যে কোনো সুস্থ মানুষেরও এধরণের হ্যালুসিনেশন হতে পারে। বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে এটা বেশি হয়।

ঘুমের মাঝে কথা বলা
যেই ব্যক্তি ঘুমের মাঝে কথা বলেন তার কোনো ধারণাই নেই নিজের সমস্যাটি সম্পর্কে। তবে এটা তার জন্য বেশ ঝামেলাই বটে। কারণ ঘুমের মাঝেই অনেক গোপন তথ্য ফাঁস করে দেয়ার সম্ভাবনা আছে তার। সাধারণত শিশুদের এবং পুরুষদের মাঝে এই সমস্যা বেশি লক্ষ্য করা যায়।

বিজ্ঞাপন

স্বপ্নের মাঝে স্বপ্ন
স্বপ্নের মাঝেও স্বপ্ন দেখা যায়। শুনতে অদ্ভুত শোনালেও এটাই সত্যি এবং অনেকেরই আছে এই সমস্যা। ‘ইনসেপশন’ ছবিতেও স্বপ্নের মাঝে স্বপ্ন দেখার দৃশ্য দেখানো হয়েছে। এই অবস্থায় জেগে ওঠার পর অদ্ভুত ঘটনা ঘটতে থাকে। কিন্তু আসলে সেই ব্যক্তি জেগেই ওঠেননি। স্বপ্নের মাঝেই স্বপ্ন দেখেছেন। এতে ঘুম ভাঙ্গার পরে বেশ এলোমেলো লাগতে পারে। এমনটা কেন হয় সেই ব্যাপারে গবেষকরা এখনও কোনো ব্যাখ্যা দিতে পারেননি।

ঘুমের মাঝে হাঁটা
ঘুমের মাঝে হাঁটা হলো স্লিপ প্যারালাইসিস এর ঠিক বিপরীত। মস্তিষ্ক ঘুমিয়ে থাকে কিন্তু মাংসপেশি সচল থাকে। স্লিপ ওয়াকিংকে ইংরেজিতে ‘সোমনামবুলিজম’ বলা হয়। ঘুমের মধ্যে যে কেউ হাঁটতে পারে, ঘর ছেড়ে বাইরেও চলে যেতে পারে। এমনকি ঘুমের মাঝে খুন কিংবা আত্মহত্যাও করা সম্ভব। কিন্তু ঘুম থেকে ওঠার পরে স্লিপ ওয়াকিংয়ে আক্রান্ত ব্যক্তির কিছুই মনে থাকে না।

মস্তিষ্ক বিস্ফোরণ সিনড্রোম
ঘুম থেকে ওঠার পরে মনে হতে পারে মস্তিষ্কে বিস্ফোরণ হয়েছে। হঠাৎ জোরে কোনো শব্দে ঘুম ভাঙ্গলে এমনটা হতে পারে সাধারণত। এছাড়াও পর্যাপ্ত ঘুমের অভাব বা বিমান ভ্রমণের ক্লান্তি থেকেও এক্সপ্লোরিং হেড সিনড্রোম হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিটি কিছুক্ষণের জন্য বধির হয়ে যান। প্রচণ্ড ভয় পেয়ে যান আক্রান্ত ব্যক্তি। এমনকি ভয়ে স্ট্রোকও হতে পারে।

ব্রাইট সাইড

শেয়ার করুন: