চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঘরবন্দি সময়ে সিনেমা: তরুণ প্রযোজক আরিফুরের প্রিয় দশ

তাদের প্রিয় সিনেমা:

ঘরে বসে দেখুন দেশ-বিদেশের সিনেমা:

করোনাভাইরাস -এর এই দুঃসময়ে নানা অনিশ্চয়তার মধ্যে মানুষ। প্রায় সবাই ঘরবন্দি। অনেককে বাসায় বসে করতে হচ্ছে অফিসের কাজ। বাইরে বের হতে না পারায় বিরাট সংখ্যক মানুষের মানসিক অবস্থা পরিবর্তনের কথাও বলছেন চিকিৎসকরা। পরামর্শ দিচ্ছেন,  ঘরবন্দির এই সময়টাকে প্রিয় কিছুর সান্নিধ্যে উদযাপন করতে।

ঘরবন্দি, বিষয়টিতে অভ্যস্ত নয় দেশের মানুষ। এদিকে মরণব্যাধী এই ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে এটাই এখন একমাত্র করণীয়। যেহেতু ঘরে বসেই কাটাতে হচ্ছে পুরো সময়, তাই কাজের বাইরে ঘরে থাকার এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে পারেন দেশ বিদেশের সিনেমা, নাটক কিংবা ওয়েব সিরিজ দেখে। পড়তে পারেন প্রিয় লেখকের বইও। এতে মন যেমন প্রফুল্ল হবে, তেমনি সময়ও কেটে যাবে আনন্দে।

বিজ্ঞাপন

করোনার এই দুঃসময়ে অন্য সবার মতো ঘরেই আছেন চলচ্চিত্র ‘মাটির প্রজার দেশে’ খ্যাত তরুণ প্রযোজক, নির্মাতা আরিফুর রহমান। এরইমধ্যে তার নির্মিত বেশকিছু গান ভিডিও, স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি প্রশংসিত হয়েছে। হাতে আছে বেশ কিছু কাজ। আর এই কাজের ফাঁকে ঘরে বসে দেখছেন সিনেমা, ওয়েব সিরিজ। চ্যানেল আই অনলাইনকে জানালেন সর্বকালে তার প্রিয় দশ সিনেমার নাম।

বিজ্ঞাপন

করোনাকালে এই প্রযোজক, নির্মাতার পছন্দের সিনেমাগুলোর সঙ্গে নিজের তালিকা মিলিয়ে দেখতে পারেন। এরমধ্যে কোনো সিনেমা দেখে না থাকলে করোনার এই বিষাদগ্রস্ত দিনগুলোতে ঘরে বসে দেখে নিতে পারেন:

ইন দ্য মুড ফর লাভ (২০০০):

দ্য গোল্ডেন গ্লোভ (২০১৯):

লা হেন (১৯৯৫):

হোয়ার ইজ দ্য ফ্রেন্ড’স হোম? (১৯৮৭):

দ্য হিডেন ফোর্টরেস (১৯৫৮)

অ্যান এডুকেশন (২০০৯):

অ্যা পিজন সেট অন অ্যা ব্রেঞ্চ রিফ্লেকটিং অন এক্সিসটেন্স (২০১৪):

অ্যান এলিফেন্ট সিটিং স্টিল (২০১৮):

বার্নিং (২০১৮):

আন্দ্রেই রুভলেভ (1966):