চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গ্যাস লাইনের প্রলোভনে কোটি টাকা প্রতারণা

গ্রেপ্তার প্রতারক চক্রের পাঁচ সদস্য

তিতাস গ্যাসের কর্মকর্তা ও ঠিকাদার পরিচয় দিয়ে রাজধানীতে বিভিন্ন বাসা বাড়িতে, বাণিজ্যিক ভবনে এবং রেঁস্তোরায় লাইন সংযোগের প্রলোভন দিয়ে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি প্রতারক চক্র।

গতকাল শনিবার যাত্রাবাড়ী ও মতিঝিল থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে সেই প্রতারক চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ ও তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

বিজ্ঞাপন

গ্রেপ্তাররা হলেন, মো. শাহাদত খান (৪৫), মো. আফতাই উদ্দিন রাহাত (২৪), মো. জাহিদুর রহমান ওরফে জাবেদ (৪৩), জাহাঙ্গীর আলম (৫০), মো. ফরিদ হোসেন ওরফে আসলাম (৪০)।

এসময় শাহাদত খানের কাছ থেকে প্রতারণা করে নেয়া ১ লাখ বিশ হাজার টাকাও জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

রোববার সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শারমীন জাহান চ্যানেল আই অনলাইনকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘গ্রেপ্তাররা তিতাস গ্যাসের লাইন সংযোগকারী প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা অন্যান্য সহযোগীসহ ঢাকা শহরের বিভিন্ন বাসা বাড়িতে ও বাণিজ্যিক ভবনে এবং রেঁস্তোরায় তিতাস গ্যাসের অফিসার এবং ঠিকাদার পরিচয় দিয়া লাইন সংযোগ করে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিত।’

সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার (ঢাকা মেট্রো-পূর্ব) কানিজ ফাতেমা চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ‘গ্রেপ্তার আসামিরা বংশালের আগামাছি লেনের বাসিন্দা মো. আল মাসুদের কাছ থেকে তার শাহবাগের ক্যাফে আল মাসুদ হোটেলে তিতাস গ্যাসের ৩০০ সিএফটি গ্যাস সংযোগ দেওয়ার নামে নিজেদেরকে তিতাস গ্যাস কোম্পানির ঠিকাদার ও অফিসার পরিচয় দিয়ে গত বছরের অক্টোবর মাসে ৪৯ লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়।’

‘‘এছাড়াও তারা তিতাস গ্যাসের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে কোটি কোটি টাকা প্রতারণামূলকভাবে হাতিয়ে নিয়েছে। এ বিষয়ে যাত্রাবাড়ী থানার মামলা (নং- ১১৯) করা হয়। যা সিআইডির ডেমরা ইউনিটে তদন্তধীন রয়েছে।’’

এই চক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে বলেও জানান কানিজ ফাতেমা।