চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গোলের পর ম্যারাডোনা স্মরণে উদযাপন মেসির

সদ্যপ্রয়াত স্বদেশি কিংবদন্তি, সাবেক গুরু ডিয়েগো ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর মন্তব্য করেছেন ‘তিনি চিরন্তন, চিরস্থায়ী।’ শোক সঙ্গী করে প্রথমবার মাঠে নেমেছেন। গোল পেলে লিওনেল মেসি যে প্রয়াত ফুটবল জাদুকরের স্মরণে ভিন্ন কিছু করবেন, অনুমান ছিল সতীর্থদের। রোববার মেসি গোল পেলেন এবং স্মরণ করলেন ম্যারাডোনাকেও।

ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে ওসাসুনাকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা। ব্র্যাথওয়েট, গ্রিজম্যান ও কৌতিনহোর গোলের পর চতুর্থ স্কোরার ছিলেন মেসি। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে জাল খুঁজে নেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা। ওই গোলের পরই ম্যারাডোনাকে স্মরণে উদযাপন করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ত্রিনকাওয়ের ক্রসে বল পেয়ে বাঁ-পায়ের শটে গোলটি আদায় করেন মেসি। বল ঠিকানায় পৌঁছালে জার্সি খুলে ফেলেন। বার্সার জার্সির নিচে ছিল ম্যারাডোনার আর্জেন্টাইন ক্লাব নিওয়েলস ওল্ড বয়েজের ১০ নম্বর জার্সি।

ম্যারাডোনার যখন শেষ নিওয়েলস ওল্ড বয়েজে, সেখানে শুরু মেসির। পরে ওল্ড বয়েজ থেকেই বার্সায় এসেছেন মেসি। ১৯৯৩ সালের ৭ অক্টোবর, নিওয়েলসে ম্যারাডোনার অভিষেক ম্যাচে গ্যালারিতে দর্শক ছিলেন কিশোর মেসি। ওই ম্যাচে গোলও করেছিলেন আর্জেন্টিনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক।

মেসির গায়ে যখন ম্যারাডোনার আর্জেন্টাইন ক্লাবের জার্সি, তখন ক্যামেরায় ম্যারাডোনার বার্সেলোনায় খেলা সময়কার জার্সিও তুলে ধরা হয়। নাপোলিতে যাওয়ার আগে ন্যু ক্যাম্পে দুবছর খেলেছিলেন মহানায়ক। ম্যারাডোনাকে স্মরণ করতে নিওয়েলসের স্মৃতিকেই দৃশ্যপটে এনেছেন মেসি।