চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গেইলের এক হাজার ছক্কা

রেকর্ডটা যে তাকেই শোভা পায়। তিনি তো টি-টুয়েন্টির ফেরিওয়ালা, ইউনিভার্স বস। দাপিয়ে খেলে বেড়ান বিশ্বময়। অন্য কেউ যখন সাতশর ঘরই ছুঁতে পারেননি, ক্রিস গেইল তাইতো হয়ে গেলেন ক্রিকেটের ছোট ফরম্যাটে এক হাজার ছক্কার মালিক।

অনন্য এ রেকর্ডের ক্লাব শুক্রবার আইপিএল ম্যাচে খুলেছেন গেইল। রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে মাইলফলকে নাম লেখান কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ক্যারিবীয় বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। খেলেছেন ৬৩ বলে ৯৯ রানের ইনিংস।

Reneta June

গেইলের ঝলমলে দিনে অবশ্য তার দল পাঞ্জাব ৭ উইকেটে হেরে বসেছে রাজস্থানের কাছে।

বিজ্ঞাপন

৯৯৩ ছক্কা সঙ্গী করে রাজস্থান ম্যাচে নেমেছিলেন গেইল। জফরা আর্চারের বলে বোল্ড হয়ে ফেরার আগে ৬ চার ও ৮ ছক্কায় ৬৩ বলের ইনিংস সাজান। তাতে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টি-টুয়েন্টিতে এক হাজার ছয়ের ক্লাব খুলে বসেন।

সবধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে গেইলের নামের পাশে ৪১০ ম্যাচে ৪০১ ইনিংসে এখন ১,০০১টি ছয়। যার ৩৪৯টি আইপিএলে, আন্তর্জাতিক ম্যাচে ১০৫টি। চারের মারও হাজার পেরিয়ে গেছে অনেক আগে, সংখ্যায় যা এখন ১,০৪১টি।

টি-টুয়েন্টিতে তার রান পেরিয়ে গেছে সাড়ে ১৩ হাজার। সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৭৫ রানের সাথে গড় ৩৮.১৬। ৮৪ ফিফটির বিপরীতে ২২ সেঞ্চুরি এই ফরম্যাটে, এদিন এক রানের জন্য হাতছাড়া হয়ে গেছে ২৩তমটি।

৪১ বছর বয়সী গেইলের মাইলফলক ছোঁয়ার ম্যাচে পাঞ্জাব নির্ধারিত ওভারে ৪ উইকেটে ১৮৫ রান তোলে। জবাব দিতে নেমে ৭ উইকেট অক্ষত রেখে ১৫ বল আগেই লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে রাজস্থান।

জয়ের পথে স্টোকস ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ২৬ বলে ৫০, স্যামসন ৪ চার ও ৩ ছক্কায় ২৫ বলে ৪৮, স্মিথ ৫ চারে ২০ বলে অপরাজিত ৩১ ও আর্চার ২ ছয়ে ১১ বলে অপরাজিত ২২ রানের ইনিংস খেলেন।