চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন: বাদল ৭ দিনের রিমান্ডে

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় গৃহবূধকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় প্রধান আসামি নূর হোসেন বাদলকে দুই মামলায় সাত দিন ও ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন সোহাগকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার বিকালে নোয়াখালীর চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগমগঞ্জ আদালতে হাজির করলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাশফিকুল হক শুনানি শেষে ওই দুই আসামির মধ্যে প্রধান আসামি বাদলের দুই মামলায় সাত দিন এবং এক মামলায় ইউপি সদস্য সোহাগকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বেগমগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাক আহমেদ আদালতের কাছে প্রধান আসামি বাদলের দুই মামলায় সাত দিন করে ১৪ দিন এবং ইউপি সদস্য সোহাগের এক মামলায় সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

বিজ্ঞাপন

নোয়াখালী বেগমগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহজাহান শেখ রিমান্ড মঞ্জুরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

গত রোববার দুপুরের দিকে ঘটনার ৩২ দিন পর গৃহবধূকে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ পেলে তা ভাইরাল হয়। এতে বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয় প্রশাসনের।

ঘটনার পর থেকে গত ৩২ দিন অভিযুক্ত স্থানীয় দেলোয়ার, বাদল, কালাম ও তাদের সহযোগীরা নির্যাতিতা গৃহবধূর পরিবারকে কিছু দিন অবরুদ্ধ করে রাখে। একপর্যায়ে তার পুরো পরিবারকে বসতবাড়ি ছাড়তে বাধ্য করলে পুরো ঘটনা দীর্ঘদিন স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ প্রশাসনের অগোচরে থাকে।

পরে ঘটনার জানাজানি হলে পুলিশ ও র‌্যাব কয়েক দফায় অভিযান পরিচালনা করে প্রধান আসামিসহ এ পর্যন্ত ছয় আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

এর আগে নির্যাতনের শিকার ওই নারী বাদী হয়ে ৪ সেপ্টেম্বর রোববার রাতে ৯ জনের বিরুদ্ধে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মামলা করেন।