চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গানে-সিনেমায় সব্যসাচী সৈয়দ হক

‘হায়রে মানুষ রঙ্গীন ফানুস…’ মানবজীবনের অবধারিত পরিণতি নিয়ে লেখা এই
গানটি এমন কোনো মানুষ নেই যার হৃদয়কে দোলা দেয় না। অবিস্মরণীয় এই গানটি
লিখেছেন বাংলা সাহিত্যের সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক, সৈয়দ হক নামেও
পরিচিত এ বহুমুখী প্রতিভার মানুষটি।

এদেশে চলচ্চিত্রের সূচনা পর্বে সাংবাদিক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেও চলচ্চিত্র জগতের সাথে নিজেকে জড়ান সৈয়দ শামসুল হক। ১৯৬৬ সালে তিনি পরিচালনা করেন উর্দু সিনেমা ‘ফির মিলেঙ্গে হাম দোনো’।

চলচ্চিত্রের অনবদ্য চিত্রনাট্যকার ছিলেন তিনি। চিত্রনাট্য রচনা, পরিচালনা, সঙ্গীত রচনা সব দিকেই ছিল তার সমান দক্ষতা। তার হাত দিয়ে বাংলা চলচ্চিত্র পেয়েছে মাটির ময়না, ময়নামতি, বড় ভাল লোক ছিল, তোমার আমার ঠিকানা, নতুন দিগন্ত, ক খ গ ঘ ঙ।

বিজ্ঞাপন

সৈয়দ শামসুল হক লিখেছেন অনেক কালজয়ী গান। একসময় মানুষের মুখে মুখে ছিলো ‘এমন মজা হয় না, গায়ে সোনার গয়না, বুবু মনির বিয়ে হবে বাজবে কত বাজনা।’

দর্শক শ্রোতাদের হৃদয়ে গেঁথে থাকা আরো অনেক গানের মধ্যে আছে, ‘সুতরাং’ সিনেমার ‘এই যে আকাশ এই যে বাতাস’, ‘একই অঙ্গে এত রূপ’ সিনেমার ‘জানিনা সে হৃদয়ে কখন এসেছে/ প্রাণের মাঝে দোলা দিয়েছে’ ‘আয়না ও অবশিষ্ট’ সিনেমার ‘যার ছায়া পড়েছে, মনেরও আয়নাতে’ কিংবা ‘ময়নামতি’ সিনেমার ‘অনেক সাধের ময়না আমার বাঁধন কেটে যায়’ অথবা ‘আশীর্বাদ’ চলচ্চিত্রের ‘চাঁদের সাথে আমি দেব না তোমার তুলনা’।

যে সিনেমাটির গান মানুষের শেষ গন্তব্য নিয়ে লিখেছেন সৈয়দ শামসুল হক, সেই সিনেমাটির নাম ছিল ‘বড় ভাল লোক ছিল’। একজন সৈয়দ শামসুল হক তো তাই ছিলেন।

বিজ্ঞাপন