চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গাইবান্ধায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিক গ্রেপ্তার

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ‘ফাতেমা পরিবহন’ গাইবান্ধা থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকায় যাতায়াত অব্যাহত রেখেছিল। বাস চালানোর সমালোচনা করে ফেসবুকে পোস্ট দেয়ার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দৈনিক মানবজমিনের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা প্রতিনিধি সিরাজুল ইসলাম রতনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের তার বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বিকালেই আদালতের মাধ্যমে তাকে গাইবান্ধা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদুর রহমান জানান, গাইবান্ধা জেলা বাস মিনিবাস কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এবং ফাতেমা পরিবহনের মালিক আব্দুস সোবাহান ওরফে বিচ্চুর দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মাসুদুর রহমান আরও জানান, গণপরিবহন চলাচলে সরকারি নিষেধাজ্ঞার মধ্যে বাস চালিয়ে ধরা পড়ে ফাতেমা পরিবহন। সেসব ঘটনায় ট্রাফিক আইনে মামলা করে জরিমানা আদায়ও করা হয়। তবে এরপরও ফাতেমা পরিবহন মহাসড়কে বাস চালিয়ে আসছিল।

বিজ্ঞাপন

সাংবাদিক সিরাজুল ইসলাম রতনের আইনজীবী শাহনেওয়াজ খান জানান, গাইবান্ধার পলাশবাড়ী আমলী আদালতে অনলাইনে সাংবাদিক রতনের জামিন আবেদন করা হয়। আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট উপেন্দ্র চন্দ্র দাস আবেদনের শুনানি শেষে জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠান।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যেও “ফাতেমা পরিবহন” গাইবান্ধা থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকায় যাতায়াত অব্যাহত রেখেছিল। এ ঘটনায় জেলার বিভিন্ন থানা পুলিশ একাধিকবার পরিবহনটিকে আটক ও মামলা করে। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাংবাদিক রতন লেখালেখি করেন।

সেটি শ্রমিক নেতা আব্দুস সোবাহানের দৃষ্টি গোচর হলে তিনি গত ১২ মে রতনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পলাশবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

শেয়ার করুন: