চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গরু-ছাগলের হাট বসিয়ে বিজ্ঞাপনের শুটিং

এ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রায় ৪ বছর পর আবার কাজে ফিরলেন অভিনেতা হাসান মাসুদ

আসন্ন কোরবানির ঈদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কীভাবে গরু ছাগল হাটে গিয়ে কিনতে হবে, তা নিয়ে বিজ্ঞাপন করছেন ‘কলুর বলদ’ খ্যাত নির্মাতা সাজ্জাদ সুমন। যার সেট দেখলে মনে হবে শুটিং নয়, যেন সত্যি সত্যি বসানো হয়েছে কোরবানির পশুর হাট!

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে কোরবানির গরুর হাটে যেতে সচেতনামূলক বিজ্ঞাপনটি নিয়ে নতুন অভিজ্ঞতা হলো নির্মাতারও।

সাজ্জাদ সুমন চ্যানেল আই অনলাইনকে বললেন, বিজ্ঞাপনটি করতে মোট ৩ দিন লেগেছে। গাজীপুরের একটি মাঠে একেবারে গরুর হাট বসিয়েই শুটিং করেছি। শুটিংয়ে গরুর হাটে ঢোকার মেইন গেট ছিল প্যান্ডেলে মোড়ানো। ছিল সারিসারি রাখা ৬০ টির মত গরু। বেশ কিছু ছাগল। হাটে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক এবং প্রবেশ ও বাহিরের গেট আলাদা।

সাজ্জাদ সুমন বলেন, প্রকৃত হাট বসানোর আয়োজন ছিল শুটিংয়ের সময়। আর এই বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন হাসান মাসুদ, শতাব্দী ওয়াদুদ, খাইরুল আলম সবুজসহ স্থানীয় মানুষজন।

সাজ্জাদ সুমনের এ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রায় ৪ বছর পর আবার কাজে ফিরলেন হাসান মাসুদ। নির্মাতা বলেন, তার চরিত্র হচ্ছে গরুর বিক্রেতার। করোনার মধ্যে উনি শুটিং করতে চাননি। পরে তাকে সবধরনের সিকিউরিটি দেয়া নিশ্চিত করলে কাজে আসেন। আমরা পরিকল্পনা মাফিক শুটিং শেষ করেছি।

চার বছর পর ক্যামেরার সামনে অভিনেতা হাসান মাসুদ

বিজ্ঞাপনে গরু ক্রেতার চরিত্রে দেখা যাবে শতাব্দী ওয়াদুদকে। সাজ্জাদ সুমন বলেন, করোনার মধ্যে গরু ছাগলের হাট কেমন হওয়া উচিত তাই দেখিয়েছি বিজ্ঞাপনে। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই গরুর হাটে যেতে হবে তারই সচেতনবার্তা তুলে ধরা হয়েছে বিজ্ঞাপনে। আমার বিশ্বাস বিজ্ঞাপনটি প্রচারের পর মানুষের মধ্যে সচেতনা বাড়বে।

এ বিজ্ঞাপনের এক্সিকিউটিভ প্রযোজক পারভেজ চৌধুরী। বিজ্ঞাপনটি দেশের সবগুলো টিভি চ্যানেল ও অনলাইনে প্রচার হবে। নির্মাতা সাজ্জাদ সুমন বলেন, টিভিতে ৫০ সেকেন্ড এবং ওভিসি হিসেবে অনলাইনে ১ মিনিট ২০ সেকেন্ডে প্রচার হবে। দুই চারদিনের মধ্যেই প্রচারে আসবে কাজটি।

শেয়ার করুন: