চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গত বছর সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪৯৬৯

গত বছর সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ হাজার ৯৬৯ জন নিহত হয়েছে। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ৫ হাজার ৮৫ জন।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ এই পরিসংখ্যান প্রকাশ করে।

বিজ্ঞাপন

সংগঠনটির চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, গত বছর মোট ৪ হাজার ৯২টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এসব দুর্ঘটনায় অন্তত ৪৯৬৯ জন নিহত এবং ৫ হাজার ৮৫ জন আহত হয়েছেন।

১১টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা, টেলিভিশন, অনলাইন পত্রিকা ও শাখা সংগঠনগুলোর তথ্যের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করে ‘নিরাপদ সড়ক চাই’।

বিজ্ঞাপন

গত বছরের জানুয়ারি মাসে ৪৪৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৯৫ জন নিহত ও ৮২৩ জন আহত হয়েছেন। ফেব্রুয়ারিতে ৩৬৫টি দুর্ঘটনায় ৪৩৭ জন নিহত ও ৭৬২ জন আহত, মার্চে ৩৭৯টি দুর্ঘটনায় ৪৫৪ জন নিহত ও ৭৬৭ জন আহত, এপ্রিলে ১৩২টি দুর্ঘটনায় ১৩০ জন নিহত ও ১২০ জন আহত, মে মাসে ১৯৬টি দুর্ঘটনায় ২৪২ জন নিহত ও ২০৬ জন আহত, জুন মাসে ২৬০টি দুর্ঘটনায় ৩৩০ জন নিহত ও ২৩৩ জন আহত।

জুলাই মাসে ২২০টি দুর্ঘটনায় ২৮৪ জন নিহত ও ১৯৭ জন আহত, আগস্ট মাসে ৩৪০টি দুর্ঘটনায় ৪৮৩ জন নিহত ও ৪২৩ জন আহত, সেপ্টেম্বরে ২১৬টি দুর্ঘটনায় ২৫০ জন নিহত ও ৪০৪ জন আহত, অক্টোবরে ২৩০টি দুর্ঘটনায় ২৬২ জন নিহত ও ৩৮৭ জন আহত, নভেম্বরে ২৬২টি দুর্ঘটনায় ৩১৬ জন নিহত ও ৩৭২ জন আহত এবং ডিসেম্বর মাসে ৩৬৩টি দুর্ঘটনায় ৪৫৮ জন নিহত ও ৩৯১ জন আহত হয়েছেন। এর বাইরে ৬৮২টি দুর্ঘটনায় হাসপাতালে ভর্তি ও রিলিজের পরে ৮২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ ছাড়া, রেল পথে ১০৮টি দুর্ঘটনায় ১২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ৩১ জন। ৭০টি নৌ দুর্ঘটনায় ২১২ জন নিহত এবং এক শ জন নিখোঁজ হয়েছেন গতবছর।

২০১৯ সালে মোট চার হাজার দুইটি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ হাজার ২২৭ জন নিহত ও ৬ হাজার ৯৫৩ জন আহত হয়েছিলেন। ২০১৮ সালে ৩ হাজার ১০৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ হাজার ৪৩৯ জন নিহত ও ৭ হাজার ৪২৫ জন আহত হন।

সড়কের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও মনিটরিংয়ের অভাব
ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, নিরাপদ সড়ক চাই মনে করে, সড়কের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও মনিটরিংয়ের অভাব, টাস্কফোর্সের ১১১টি সুপারিশ বাস্তবায়ন না হওয়া, চালকদের প্রতিযোগিতার প্রবণতা, দৈনিক চুক্তিতে গাড়ি চালানো, লাইসেন্সহীন চালক, পথচারীদের অসচেতনতা, বিরতিহীন গাড়ি চালনা, ফিটনেসহীন গাড়ি চালনা বন্ধে আইনের প্রয়োগ না থাকা, সড়ক ও মহাসড়কে তিন চাকার গাড়ি এবং মোটরসাইকেলের সংখ্যা বেড়ে যাওয়া, মহাসড়ক নির্মাণে ত্রুটি থাকায় দুর্ঘটনা বাড়ছে।