চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

খুবিতে অপসারণ-বহিষ্কার: শিক্ষক নেটওয়ার্কের কর্মসূচি ঘোষণা

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রতিহিংসামূলকভাবে অপসারণ ও বহিষ্কারের প্রতিবাদে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক নেটওয়ার্ক।

সোমবার এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়: ২৮ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার দেশব্যাপী সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপযুক্ত স্থানে একযোগে দুপুর ১২টা থেকে শিক্ষার্থী-শিক্ষক-অভিভাবকদের প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক নেটওয়ার্ক তাদের দাবিসমূহ তুলে ধরে। সেগুলো হলো:

১। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের শাস্তি অবিলম্বে বাতিল করতে হবে।
২। প্রশাসনের বিরুদ্ধে দুর্নীতিসহ সব অভিযোগের তদন্ত করতে হবে।
৩। অযোগ্য-দুর্নীতিবাজ ভিসি নিয়োগ বন্ধ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালনাবিধিতে গণতন্ত্রায়ণ ও স্বায়ত্তশাসন নিশ্চিত করতে হবে।
৪। শিক্ষার্থীদের পক্ষে দাঁড়ানোর ‘শাস্তি’ হিসেবে শিক্ষকদের ভয় দেখানো বন্ধ করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক নেটওয়ার্ক জানায়: ‘‘আন্দোলনে অংশ নিয়ে শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবী তুলে ধরার ‘অপরাধে’ ২৩ জানুয়ারি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ ১ জন শিক্ষককে বরখাস্ত এবং ২ শিক্ষককে অপসারণসহ ২ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে, যা যেকোন বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য অত্যন্ত লজ্জাকর।

গত বছর জানুয়ারি মাসে শিক্ষার্থীরা আবাসিক সঙ্কট সমাধানসহ কিছু বিষয়ে দাবিদাওয়া জানাচ্ছিল। সেগুলোতে এই শিক্ষকেরা সমর্থন জানানোতে কর্তৃপক্ষের রোষানলে পড়েন। গত কয়েকমাসে সংঘটিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এটাই প্রতীয়মান হচ্ছে যে, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই তিনজন শিক্ষককে প্রতিহিংসা পরায়ণভাবে শিক্ষকতা পেশা থেকে সরানোর চেষ্টা করছেন।

শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনের (আবাসন-সংকট সমাধানসহ অন্যান্য দাবি-দাওয়া) প্রতি সংহতি প্রকাশ যেকোন শিক্ষকের সাধারণ কর্তব্যবোধের পরিচায়ক; আর ঐ শিক্ষকবৃন্দ সেটাই করেছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক নেটওয়ার্কের মতে, সাধারণ শিক্ষকসুলভ আচরণকে কর্তৃপক্ষ যে বারংবার প্রশ্নবিদ্ধ করতে চাইছে, তার থেকেই আমরা বুঝতে পারি কর্তৃপক্ষের স্বার্থ ও উদ্দেশ্য নিবর্তনমূলক।’’