চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

খালেদার দণ্ডাদেশ মওকুফসহ বিদেশে চিকিৎসার আবেদন পরিবারের

সরকারের নির্বাহী আদেশে মুক্ত বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ মওকুফসহ তার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেওয়ার আবেদন করেছে পরিবার।

পাশাপাশি সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদনও করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আজ মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার ভাই শামীম ইস্কান্দার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর এ আবেদন করেন। পরিবার ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

পরিবারের একটি সূত্র জানায়, মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে খালেদা জিয়ার ভাই শামীম ইস্কান্দার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন জমা দেন। একইসঙ্গে খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে তার স্থায়ী জামিনের আবেদনও করা হয়। তবে, এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে খালেদা জিয়ার পরিবারকে কিছু জানানো হয়নি।

এ বিষয়ে আজ সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়ানো এবং একইসাথে তার দণ্ডাদেশ মওকুফ করার জন্য আবেদন করেছে তার পরিবার। বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নেয়ার আবেদনও করেছেন তারা।

তিনি বলেন, বিষয়টি আইন মন্ত্রণালয় পাঠানো হবে পরীক্ষা নীরিক্ষা করে দেখার জন্য। এরপর সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে ছিলেন খালেদা জিয়া। গত বছর ২৫ মার্চ ৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়াকে ২৫ মাস কারাভোগের পর সরকার শর্ত সাপেক্ষে ছয় মাসের জন্য দণ্ড স্থগিত করে মুক্তি দেয়। এরপর দ্বিতীয় দফায় ফের ছয় মাস সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানো হয়। সে মেয়াদ আগামী ২৫ মার্চ শেষ হচ্ছে।