চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

খাজার কামব্যাক সেঞ্চুরিতে চালকের আসনে অজিরা

ফিরেই বল হাতে উজ্জ্বল ব্রড

Nagod
Bkash July

সোয়া দুই বছর পর টেস্ট ক্রিকেটে ফেরাটাকে কি দারুণভাবেই না স্মরণীয় করে রাখলেন উসমান খাজা। অ্যাশেজ সিরিজের চতুর্থ টেস্টের দ্বিতীয় দিনে তার করা দারুণ এক সেঞ্চুরিতে চালকের আসনে বসে পড়েছে অস্ট্রেলিয়া।

Reneta June

স্বাগতিক ব্যাটাররা ইংলিশ বোলারদের উপর আরও চড়ে বসতে পারত যদি স্টুয়ার্ড ব্রড রাশ ধরে টানতে না পারতেন। অ্যাডিলেড টেস্টে বাজে পারফরম্যান্সে দল থেকে বাদ পড়া অভিজ্ঞ পেসার পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে প্রমাণ করেছেন তার উপর আস্থা রেখে ভারপ্রাপ্ত কোচ গ্রাহাম থর্প মোটেও ভুল করেননি।

বৃহস্পতিবার সিডনি টেস্টে ৮ উইকেটে ৪১৬ রান করে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়া। দিনের খেলা শেষের আগে ইংল্যান্ডের স্কোরবোর্ড বিনা উইকেটে ১৩ রান। ফলোঅন এড়াতে তাদের এখনো ২০৪ রান তুলতে হবে।

অস্ট্রেলিয়া ৪১৬/৮ (খাজা ১৩৭,স্মিথ ৬৭; ব্রড ৫/১০১), ইংল্যান্ড ১৩/০ (হাসিব ২*, ক্রাউলে ২*)

বৃষ্টি বিঘ্নিত প্রথম দিনে ৩ উইকেটে ১২৬ রান তোলা অস্ট্রেলিয়া আজ উসমান খাজা ও স্টিভেন স্মিথের ব্যাটে চড়ে মসৃণভাবে ইনিংস বড় করার পথে এগোতে থাকে। চতুর্থ উইকেটে এই জুটি ১১৫ রান যোগ করে বড় স্কোরের ভিত্তি গড়ে দেন।

দিশেহারা ইংল্যান্ডকে পথ দেখানোর কাজটি মূলত করেছেন ব্রড। ১৪১ বলে ৫টি চারের মারে ৬৭ রান করা স্মিথকে তিনি প্যাভিলিয়নের পথ দেখান। গুডলেন্থে করা ব্রডের বলটি কোণাকুণি ভেতরে ঢোকার পর মাটিতে পড়ে এর সিম মুভমেন্ট করার পর স্মিথের ব্যাটে চুমু খেয়ে তা বাটলারের গ্লাভসে জমা পড়ে।

এরপর পাঁচ রান করা ক্যামেরন গ্রিনের উইকেটও তুলে নেন ব্রড। অফস্টাম্পের অনেক বাইরের বল অবিবেচকের মতো চালিয়ে তৃতীয় স্লিপে থাকা ক্রাউলের হাতে গ্রিন ক্যাচ দিয়ে ফেরেন।

দলীয় ২৮৫ রানের মাথায় ষষ্ঠ ব্যাটার হিসেবে ক্রিজ ছাড়েন অ্যালেক্স ক্যারি, ১৩ রান করে তিনি জো রুটের অফ স্টাম্পের বাইরের বল স্লগ সুইপ করতে গিয়ে মিড অনে থাকা জনি ব্যারিস্টোর হাতে ধরা পড়েন।

প্রতিপক্ষকে তারপরও বড় স্কোর গড়া থেকে আটকে রাখতে পারেনি থ্রি লায়নরা। উসমান খাজা তার ৪৫তম টেস্ট খেলতে নেমে পেয়েছেন নবম সেঞ্চুরি। সপ্তম উইকেটে প্যাট কামিন্সকে নিয়ে গড়েন ৪৬ রানের জুটি।

ব্রড অবশ্য এই জুটি আরও বড় হওয়ার আগেই কামিন্সকে ফেরান। যদিও ফিল্ড আম্পায়ার তাকে আউট দেননি। বল তার ব্যাটে লেগে বাটলারের দস্তানায় গিয়েছিল। ইংল্যান্ড রিভিউ নিয়ে সাফল্য পায়।

অজিদের চারশ রানের গণ্ডি পেরোতে বড় ভূমিকা রাখে অষ্টম উইকেটে খাজা ও মিচেল স্টার্কের ৬৭ রানের জুটি। চারে ব্যাট করতে নামা খাজা ২৬০ বল খেলে ৪১০ মিনিট উইকেটে থেকে ১৩ চারের মারে ১৩৭ রানের মহামূল্যবান ইনিংস খেলার পর তাকে বোল্ড করে নিজের পাঁচ উইকেট শিকার করেন ব্রড।

ব্যাট করতে নেমেই হাত চালাতে শুরু করেন নাথান লায়ন, ৭ বলে দুই চারের মারে অপরাজিত থেকে তুলে ফেলেন ১৬ রান। স্টার্ক ৬০ বলে ৩ চারের মারে অপরাজিত থেকে করেন ৩০ রান। শেষ সেশনে ইনিংস ঘোষণার আগে অস্ট্রেলিয়া তুলে ফেলে ৮ উইকেটে ৪১৬ রান।

ইংল্যান্ডের পক্ষে ব্রড ১০১ রান দিয়ে নেন পাঁচ উইকেট। একটি করে উইকেট পান জেমস অ্যান্ডারসন, মার্ক উড ও জো রুট।

দিনের বাকি সময়ে ৫ ওভার ব্যাট করে উইকেট না হারিয়ে ইংলিশরা করে ১৩ রান, এর মধ্যে অতিরিক্ত খাত থেকেই এসেছে ৯ রান! হাসিব হামিদ ও জাক ক্রাউলে দুই রান নিয়ে আগামীকালের খেলা শুরু করবেন।

BSH
Bellow Post-Green View