চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ক্ষুধাসূচকে উন্নতি করেছে বাংলাদেশ: কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, বাংলাদেশ এখন শুধু খাদ্যে নয় বরং এমডিজি’র প্রায় সবগুলো লক্ষ্য অর্জন করেছে। বাংলাদেশ ১১৭টি দেশের মধ্যে ক্ষুধাসূচকে ২৫.৮ স্কোর নিয়ে ৮৮তম হয়েছে।

তার দাবি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়োপযোগী পদক্ষেপে কৃষিতে বাংলাদেশের সাফল্য ঈর্ষণীয়। কৃষিজমি ক্রমান্বয়ে কমে যাওয়ায় জনসংখ্যা বৃদ্ধিসহ জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বন্যা, খরা, লবণাক্ততা ও বৈরী পরিবেশেও খাদ্যশস্য উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উদাহরণ।

সোমবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘বিশ্ব ক্ষুধাসূচক ২০১৯’ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

এ সময় কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘‘ধান, গম ও ভুট্টা বিশ্বের গড় উৎপাদনকে পেছনে ফেলে ক্রমেই এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। সবজি উৎপাদনে তৃতীয় আর চাল ও মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে চতুর্থ অবস্থানে। বন্যা, খরা, লবণাক্ততা ও দুর্যোগ সহিষ্ণু শস্যের জাত উদ্ভাবনেও শীর্ষে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ শুধু খাদ্যে নয় বরং এমডিজি’র লক্ষ্য প্রায় সবগুলো লক্ষ্য অর্জন করেছে। তাইতো বাংলাদেশ ১১৭টি দেশের মধ্যে ক্ষুধা সূচকে ৮৮তম হয়েছে।’’

তিনি জানান, ‘গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স (জিএইচআই) তৈরি হয়েছে চারটি মাপকাঠিতে প্রতিটি দেশের পরিস্থিতি বিচার করে। অপুষ্টি, ৫ বছরের কম বয়সীদের মধ্যে কম ওজনের শিশু, ৫ বছরের কম বয়সীদের মধ্যে কম উচ্চতার শিশু এবং ৫ বছরের কম বয়সী শিশুমৃত্যু−এই চারটি মাপকাঠিতে প্রতিটি দেশের স্কোর হিসাব করা হয়েছে ১০০ পয়েন্টের ভিত্তিতে।’

অনুষ্ঠানে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাতীয় পুষ্টিসেবার লাইন ডিরেক্টর ডা. এস এম মোস্তফিজুর রহমান, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পুষ্টি কাউন্সিলের মহাপরিচালক ডা. শাহ নেওয়াজ, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর একেএম মুসা; হেলভেটাস বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর উম্মে হাবিবা প্রমুখ।

শেয়ার করুন: